মঙ্গলবার ১৫ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

ছাত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতিকে ১ কোটি টাকার বিনিময়ে ম্যানেজের চেষ্টা !

আপডেটঃ ৩:৩৮ পূর্বাহ্ণ | জুন ২২, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ সদ্য বাতিল হওয়া ছাত্রদলের কমিটি ও কমিটিতে বয়স সীমা বাতিলের প্রতিবাদে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতারা। দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন তারা।
বয়স সীমা নির্ধারণ না করে ধারাবাহিক কমিটির দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়ে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধরা বলছেন, দাবি না মেনে ত্যাগী কর্মীদের অবহেলা করলে ছাত্রদল টিকবে না। এদিকে, বিক্ষুব্ধদের হুঁশিয়ারিতে বিপাকে পড়ে আছে বিএনপির শীর্ষ নেতারা। এমন প্রেক্ষাপটে অভিযোগ উঠেছে, কমিটি ইস্যুতে ছাত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতিকে ম্যানেজ করার চেষ্টা করেছেন শীর্ষ নেতারা।
এ বিষয়ে সদ্য বিলুপ্ত ঘোষণা করা ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সংসদের সিনিয়র সহ-সভাপতি এজমল হোসেন পাইলট বলেন, ছাত্রদল বিএনপির একটি অঙ্গসংগঠন। তাই দলের সম্মান রক্ষার্থে ঘুষ প্রদানের অপচেষ্টাকারী নেতাদের নাম প্রকাশ করছি না। সাবেক কমিটির নেতাদের বিক্ষুব্ধ অবস্থান থেকে সরিয়ে আনতে বিএনপির কিছু নেতা আমাকে ১ কোটি টাকা উৎকোচ দেয়ার অফার করেছে। আমি অবাক হয়েছি! যেখানে আমরা তাদের কাছ থেকে রাজনৈতিক আদর্শ শিখবো, সেখানে তারা আমাদের আদর্শহীনতা শেখাচ্ছেন।
নেতারা ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ কর্মীদের দাবিকে অবহেলা করে তাদেরকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন উল্লেখ করে পাইলট আরও বলেন, আমরা দীর্ঘ ১৩-১৪ বছর ধরে ছাত্র রাজনীতি করছি। আমাদের জীবনটা এই সংগঠনের জন্য উৎসর্গ করে দিয়েছি। দীর্ঘসময় ধারাবাহিক কমিটি না দেয়ায় একটা বড় গ্যাপ তৈরি হয়েছে। সেই গ্যাপটা হঠাৎ পূরণ করতে গিয়ে যদি ধারাবাহিক কমিটি ঘোষণা করা না হয় তবে ছাত্রদল দুর্বল হয়ে পড়বে। যদি দলের হাইকমান্ড আমাদের দাবি না মানে তবে সংগঠনের অস্তিত্ব থাকবে না। এই বিষয়টি তাদের স্পষ্ট জানিয়ে দিলাম।
নিজ দলের নেতাদের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করা ঠিক না উল্লেখ করে পাইলট আরও বলেন, আমি জানি উৎকোচের বিষয়টি প্রকাশ করা উচিৎ হয়নি। তবে নূন্যতম সম্মান প্রদর্শন করে আমি সেইসব নেতাদের নাম প্রকাশ করলাম না। আমি যদি উৎকোচের প্রলোভন দেয়ার বিষয়টি নিয়ে চুপ করে যেতাম তাহলে দলের অন্যান্যরা সাবধান হতো না। আমি চেয়েছি দলের সকল অঙ্গসংগঠনকে সাবধান করতে। দাবি যদি যৌক্তিক হয় তবে কর্মীদের জন্য হলেও দাবিতে অনড় থাকা রাজনীতির আদর্শ- এটা মনে রাখা উচিত।