শুক্রবার ১৯শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

শ্রীলঙ্কা পুলিশের আইজি গ্রেপ্তার

আপডেটঃ ১০:১১ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ০৩, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : শ্রীলঙ্কায় সিরিজ বোমা হামলা ঠেকাতে ব্যর্থতার অভিযোগে দেশটির পুলিশপ্রধান ও প্রতিরক্ষা বিভাগের সাবেক সচিবকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার  সে দেশের গোয়েন্দা বিভাগ পৃথক দুটি হাসপাতাল থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে।

আল জাজিরা ও  এএফপি জনিয়েছে,  গ্রেপ্তার দুজন হলেন- শ্রীলঙ্কা পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজি) পূজিত জয়াসুন্দরা ও প্রতিরক্ষা বিভাগের সাবেক সচিব হেমাসিরি ফার্নান্দো।

কলম্বো পুলিশের মুখপাত্র রুয়ান গুনাসেকেরা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গ্রেপ্তারের সময় তারা দু’জন পৃথক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

শ্রীলঙ্কার অ্যাটর্নি জেনারেল ডাপুলা ডি লিভেরা দুই শীর্ষ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিরাপত্তা ব্যর্থতার অভিযোগ আনার পরদিন তাদের গ্রেপ্তার করা হলো। এর আগে এই দুই কর্মকর্তাকে দেশটির পার্লামেন্টারি তদন্ত কমিটির মুখোমুখি হতে হয়েছিল।

গত ২১ এপ্রিল ইস্টার সানডে উদযাপনের সময় শ্রীলঙ্কায় দুই দফায় তিন গির্জা ও চারটি বিলাসবহুল হোটেল-সহ আট জায়গায় বোমা হামলা হয়। এতে ২৫৭ জন নিহত এবং আরও পাঁচশ’ মানুষ আহত হয়।

পূজিত ও হেমাসিরির বিরুদ্ধে অভিযোগ, ওইসব হামলার ব্যাপারে গোয়েন্দা তথ্য থাকা সত্ত্বেও তাঁরা দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল ডাপুলা আরও বলেন, গ্রেপ্তার দুজনকে হত্যা মামলায় অভিযুক্ত করা হতে পারে। এছাড়া নিরাপত্তা ত্রুটিজনিত কারণে পুলিশের আরও নয় জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, গত ২১ এপ্রিল সকালে শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে প্রথমে হামলার শিকার হয় ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের তিনটি বড় গির্জা সেইন্ট অ্যান্থনি চার্চ, সেইন্ট সেবাস্টিয়ান চার্চ ও জিয়ন চার্চ। ইস্টার সানডের প্রার্থনায় এসব চার্চে সমবেত হয়েছিলেন হাজারো মানুষ।

এছাড়া হামলা হয় কলম্বোর পাঁচ তারকা হোটেল শাংরি লা, কিংসবুরি ও সিনামন গ্র্যান্ড হোটেলে। এসব হোটেলে অনেক বিদেশি পর্যটক ছিলেন। পরে বিকেলে আরো দুটি হামলার ঘটনা ঘটে।

ওইসব হামলার জন্য স্থানীয় উগ্রপন্থী ইসলামি গোষ্ঠী ন্যাশনাল তৌহিদ জামায়াতকে (এনটিজে) অভিযুক্ত করা হয়।