শুক্রবার ১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

টঙ্গীতে স্কুল ছাত্রকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা …….

আপডেটঃ ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ০৯, ২০১৯

এম এস আই জুয়েল পাঠান -:গাজীপুরের টঙ্গীতে শুভ আহম্মেদ (১৫) নামে এক স্কুলছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। রোববার রাত ২টার দিকে বিসিক ফকির মার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে গাজীপুর মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ। নিহত শুভ টঙ্গীর ফকির মার্কেট কারখানার শ্রমিক রাজু মিয়ার ছেলে। ফকির মার্কেট রিয়াজউদ্দিনের বাড়িতে ভাড়া থেকে ওই এলাকার স্থানীয় ফিউচারম্যান স্কুলের নবম শ্রেণীর বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র ছিলো।
এলাকাবাসী ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, টাঙ্গাইলের গোপালপুর এলাকার বাসিন্দা রাজুমিয়া ও তার স্ত্রী সুমি আক্তার দুই জনই স্থানীয় একটি পোশাক তৈরি কারখানায় কাজ করেন। বড় মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে এবং ছেলে শুভ আহমেদ ফিউচারম্যান স্কুলের নবম শ্রেণীতে লেখাপাড়া করতো। 
গত রোববার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে চুল কাটার জন্য সেলুনের কথা বলে শুভ তার পিতার কাছ থেকে টাকা নিয়ে বাসা থেকে বের হয়ে যায়। সেলুনে চুল কাটার পর ৫-৬ জন কিশোর তাকে ডেকে নিয়ে যায়। পরে বিসিকের একটি নির্জন রাস্তায় নিয়ে তাকে এলোপাথারী ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। মাঝ রাত হয়ে গেলেও সে বাড়িতে না ফেরায় তার পরিবারের লোকজন শুভর মুঠোফোনে ফোন করে বন্ধ পায়। পরে তাকে খোঁজ করেও পাওয়া যায়নি। রাত ২ টার দিকে স্থানীয় কয়েকজন লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে টঙ্গী পূর্ব থানায় নিয়ে যায়। লাশ উদ্ধারের খবর পেয়ে শুভর পরিবার থানায় গিয়ে লাশ সনাক্ত করেন। 
নিহত স্কুল ছাত্র শুভর বোন জামাই এনামুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান, তার শ্যালককে হত্যার সঙ্গে তার বন্ধুরাই জড়িত। তাদের গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলেই প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।টঙ্গী পূর্ব থানার পরিদর্শক জাহিদুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। এর সঙ্গে শুভর বন্ধুরা জড়িত থাকতে পারে। ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। নিহতের পিঠে ৬ টি, বুকে ও মাথায় একটি করে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যার ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।টঙ্গী পূর্ব থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামাল হোসেন ঘটনায় সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।