শুক্রবার ১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

কাজের সক্ষমতা রাখা অনলাইনকে নিবন্ধন দেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী

আপডেটঃ ৩:৩৬ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ১৬, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক :- তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ সোমবার বলেছেন, কাজ করার সক্ষমতা রাখে সেসব অনলাইনগুলো নিবন্ধনের আওতায় আনা হবে।
তিনি বলেন, ‘আমরা আবেদন করা অনলাইনগুলোর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে যেগুলো প্রয়োজন আছে, অনলাইন হিসাবে সত্যিকার অর্থে কাজ করতে পারবে, কাজ করার সক্ষমতা রাখে এবং অন্য কোনো উদ্দেশে দরখাস্ত করা হয়নি সেগুলোকে যাচাই-বাছাই করে নিবন্ধনের আওতায় আনব। রেজিস্ট্রেশনটি হলে সেখানে একটি শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠিত হবে।’
সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে ডিসিদের সঙ্গে অধিবেশন শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।
কবে নাগাদ অনলাইন নিবন্ধন হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনলাইনের জন্য যাচাই-বাছাই করে সিদ্ধান্ত নিতে সময় লাগবে। নির্ধারিত করে সময় বলতে চাই না।
‘অনলাইনগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় আনার জন্য দরখাস্ত আহ্বান করেছি, আজ শেষ দিন। এ পর্যন্ত সবমিলিয়ে আট হাজারেরর বেশি দরখাস্ত জমা পড়েছে। আট হাজার অনলাইন বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে কতটুকু যৌক্তিক, সে প্রসঙ্গটি অবশ্যই আসে,’ যোগ করেন মন্ত্রী।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘একই সঙ্গে নিউ মিডিয়া, বিশেষ করে স্যোসাল মিডিয়ার যে চ্যালেঞ্জ রয়েছে সেটি নিয়ে ডিসিদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। এটি শুধু বাংলাদেশ নয়, গোটা পৃথিবীতে একটি বড় চ্যালেঞ্জ। আমরা এই চ্যালেঞ্জের মধ্য দিয়েই যাচ্ছি।’
আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বলেন, ক্যাবল নেটওয়ার্ক পরিচালনার ক্ষেত্রে যে আইন সেটি পরিচালনা করার জন্য ক’দিন আগে থেকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছি। টেলিভিশন ক্রম নিয়ে বিশৃঙ্খলা ছিল, দেশি চ্যানেলের মাঝে বিদেশি চ্যানেল ঢুকে যেত। যারা ক্যাবল ব্যবসায়ী তাদের সঙ্গে সম্পর্কের ভিত্তিতে চ্যানেলের ক্রম নির্ধারণ হতো। সেখানে এখন শৃঙ্খলা ফিরেছে।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাস্তবায়ন করতে গিয়ে এর কোনো অপব্যবহার যেন না হয়, অহেতুক কেউ হয়রানির শিকার না হন, সেদিকে লক্ষ্য রাখতে ডিসিদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।