মঙ্গলবার ১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

দুর্যোগ-সহনীয় পাকা ঘর নির্মাণ করে দেয়া হবে : ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

আপডেটঃ ৯:২৬ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ১৮, ২০১৯

(মৌলভীবাজার) সংবাদদাতা : ত্রাণ ও দূর্যোগ প্রতিমন্ত্রী ড. মো. এনামুর রহমান বলেছেন, যত ত্রাণের জন্য বলা হবে তত ত্রাণ দেয়া হবে। বন্যা দূর্গতদের মাঝে ৬‘শ ৫০ মেট্টিক টন চাল, নগদ সাড়ে ৯ লাখ টাকা ও ৭ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে।
বুধবার (১৭ জুলাই) দুপুরে মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার উত্তরভাগ ইউনিয়নে বন্যা দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণকালে এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, দুর্যোগ সহনীয় পাকা ঘর নির্মাণ করে দেয়া হবে বন্যা দুর্গতদের। যাতে দু’টি রুম থাকবে। বন্যা দ‍ুর্গতদের মাঝে আগামী ঈদে ১৫ কেজি চাল দেয়া হবে।
তিনি আরোও বলেন, বন্যাদুর্গত এলাকার শিশুদের জন্য ও গবাধি পশুর রক্ষণাবেক্ষণে টাকা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এ ছাড়াও মৌলভীবাজারে বন্যা দূর্গতদের মাঝে বিতরণের জন্য নতুন করে ২‘শ মেট্টিক টন চাল বরাদ্ধের ঘোষণা দেন মন্ত্রী। 
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বন্যা দুর্গতরা ত্রাণ পাচ্ছে না এটা ঠিক নয়। ত্রাণের কোনো অপ্রতুলতা নেই। বরাদ্ধের ২‘শ মেট্টিক টন চাল এখনো রয়েছে।
এ সময় পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামিম বলেন, বাংলাদেশে প্রতিবছর বন্যা হয়। ভারত থেকে আসা পানিতে বাংলাদেশের কয়েকটি জেলার কিছু অংশ প্লাবিত হয়। মৌলভীবাজারে যতদিন বন্যা থাকবে ততদিন ত্রাণ দেয়া হবে। বাংলাদেশের কোথাও ত্রাণের সংকট হয়না। 
তিনি বলেন, মনু নদী প্রকল্পে বরাদ্ধের জন্য ১হাজার ২ কোটি টাকা বরাদ্ধের জন্য একনেকে তুলা হবে। এ বছর মনু নদী প্রকল্পের কাজ শুরু হবে।
তিনি আরোও বলেন, কুশিয়ারা নদীর ৪‘শ ৯৪ কোটি টাকা বরাদ্ধ দেয়া হবে। ২০১৯ সালের মধ্যে কুশিয়ারা নদীর কাজ শেষ হবে।