সোমবার ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

খালিয়াজুরীতে শিক্ষকের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ….

আপডেটঃ ১২:২০ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০৪, ২০১৯

নেত্রকোনা -খালিয়াজুরী (প্রতিনিধি): নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুরী উপজেলার মেন্দিপুর ইউনিয়নের নূরপুর বোয়ালী কমিউনিটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা সালমা আক্তারের বিরুদ্ধে শিক্ষা অফিসারের স্বাক্ষর জাল করে চাকুরি নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার ফারুক মিয়া, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কাসেম প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের সচিব বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
অভিযোগে জানা গেছে, জেলার খালিয়াজুরীর নূরপুর বোয়ালী কমিউনিটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সালমা আক্তার ভ’য়া কাগজপত্র সৃজন করে জেলা ও উপজেলা শিক্ষা অফিসারের স্বাক্ষর জাল করে ২০০৩ সালে সহকারী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেখান। পরবর্তীতে চাকুরি জাতীয়করণ ও বেতন -ভাতা উত্তোলনের জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ে আবেদন করে মঞ্জুরীর জন্য পায়তারা করছেন। ২০০৩ সালে বিদ্যালয়টি দুই কক্ষ বিশিষ্ট ও দুইজন শিক্ষক ছিলেন। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে ২০১০ সালে বিদ্যালয়টি চার কক্ষ বিশিষ্ট রূপান্তর করে আরও দুইজন শিক্ষক নিয়োগের সিদ্ধান্ত হয়। ২০১৩ সালে বিদ্যালয়টি জাতীয়করণ হওয়ার পর সালমা আক্তার মন্ত্রনালয়ের আদেশের আগেই ২০০৩ সালে নিয়োগ দেখিয়ে উপজেলা শিক্ষা কমিটির বানোয়াট রেজুলেশন তৈরী করে বেতন ভাতা দাবী করছেন। অন্যদিকে উপজেলা শিক্ষা কমিটির সিদ্ধান্তে বিদ্যালয়ের শূন্যপদে মাজহারুল ইসলামকে সহকারী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে বলে তার দাবী। দীঘদিন ধরে তিনি বিনা বেতনে চাকুরি করছেন। কিন্তু সরকারি বেতন ভাতা হচ্ছে না। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য তিনি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের সচিব বরাবরে লিখিতভাবে জানিয়েছেন।
নূরপুর বোয়ালী কমিউনিটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা সালমা আক্তার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, নিয়মিত বিদ্যালয়ে আসা যাওয়া করছি। কোন অনিয়মের আশ্রয় আমি নেই নি। স্থানীয় একটি মহল আমার বিরুদ্ধে নানা মিথ্যে ও বানোয়াট ষড়যন্ত্র এবং ক্ষতি করার চেষ্টা করছে।