সোমবার ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

ঝালকাঠিতে ষষ্ঠ শ্রেণির শিশু ছাত্রীকে জোরপূর্বক অনৈতিক কাজে বাধ্য করার অভিযোগে- মা ও সৎ বাবাকে আটক….

আপডেটঃ ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

ঝালকাঠি প্রতিনিধি-: গাজী গিয়াস উদ্দিন বশির: ঝালকাঠিতে ষষ্ঠ শ্রেণির এক শিশু ছাত্রীকে জোরপূর্বক অনৈতিক কাজে বাধ্য করার অভিযোগে শিশুটি মা ও সৎ বাবাকে পুলিশ আটক করেছে। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে শহরের কালীবাড়ি সড়কের একটি বাবা থেকে তাদের আটক করা হয়। এসময় শিশুটিকে উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ ও ¯’ানীয়রা জানায়, শহরের কাঠপট্টি এলাকার মায়ের বাড়িতে থাকতো শিশুটি। গত কয়েক মাস আগে শিশুটিকে তার মা ও সৎ বাবা জোরপূর্বক কয়েকজন পুরুষের সঙ্গে অনৈতিক কাজে বাধ্য করে। এতে শিশুটি অন্তঃসত্তা হয়ে পড়ে। এ অব¯’ায়ও শিশুটিকে অনৈতিক কাজে আবারো পাঠানো হলে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। আজ বুধবার সকালে চিকিৎসার জন্য তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাতেই শহরের কালীবাড়ি সড়ক এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে শিশুটির মা সাহেরা আক্তার কাজল ও সৎ বাবা মো. আলমকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় শিশুটি বাদী হয়ে মা ও সৎ বাবার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। ভিকটিম শিশুটি শহরের একটি স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে।

দুইজন প্রতিবেশী জানায়, এইমেয়ে কে নিয়ে আমাদের এখানে দীর্ঘদিন বসবাস করতো। তার মা কাজল বেগম একজন খারাপ মহিলা ছিলো তার বাসায় অনেক পুরুষ লোক আসাযাওয়া করতো।

ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের আবাশিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. গোলাম ফরহাদ বলেন,ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে একটি শিশু আমাদের এখানে এসেছে, আমরা মহিলা ডা: দিয়ে পরিক্ষা নিরিক্ষা করে দেখবো সে ধর্ষিত কিনা বা গর্ভবতি কতদিনের তা দেখবো।

এব্যাপারে ঝালকাঠির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল এমএম মাহমুদ হাসান বলেন, আমরা প্রথমিক ভাবে অভিযোগ পেয়ে বিকটিম কে উদ্ধার করি। বিকটিম কে প্রাথমিক ভাবে জিজ্ঞাসাবাদে তার মা ও আশ্রয়ধানকারি কে আটক করেছি ও এদেরকে আদালতে সোর্পদ করি। মেয়েটিকে জিজ্ঞাসাবাদে মেয়েটি জানায়, যে, সে সাত মাসের গর্ভবতি। বিকটিম সাত মাস আগেই শহরে একটি বাসায় থাকত সেখানে বিভিন্ন লোকজন আসাযাওয়া করতো। বিকটিম কখোনোই এলাকার সুশিলসমাজ বা কাউকেই বিষয়টি নিয়ে কোন অভিযোগ করেনি। আমরা তার অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষনিক ভাবে আইনগত ব্যাব¯’ানিয়েছি।