সোমবার ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

টঙ্গীতে যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীর উপর নির্যাতন…

আপডেটঃ ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

সুজন সারোয়ার -:টঙ্গী (গাজীপুর) -:গাজীপুরের টঙ্গীর তিস্তারগেট এলাকায় যৌতুকের ২লাখ টাকা না পেয়ে স্ত্রী শামীমা সুলতান শোভা ও সন্তান আয়ানকে শারীরিক নির্যাতন চালানোয় পাষন্ড স্বামী আনোয়ার হোসেন বাবুর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে টঙ্গী পূর্ব থানায় শোভা বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। থানায় অভিযোগ করায় স্ত্রীকে গুম করে পরিবারকে মামলা উঠানো জন্য প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে। এ ব্যাপারে থানা পুলিশ নিরব ভুমিকা পালন করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পরিবারটি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

মেয়ের বাবা জানায়, গত ১৬/০৫/২০১৯ইং তারিখে তিস্তারগেট দুধ ব্যবসায়ীর ছেলে আনোয়ার হোসেন বাবুর সাথে আমার মেয়ে শামীমা সুলতান শোভার বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। বিবাহের পর থেকে আমার মেয়েকে যৌতুকের টাকার জন্য নির্যাতন চালায়। একপর্যায় মেয়ে তার মামার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে ছেলেকে দেয়, কিন্তু তার ব্যবহারের কোনো পরিবর্তন হয়নি। এভাবে নিজেকে মানিয়ে নিয়ে সংসার ধরে রাখার চেষ্টায় চালায়।

বিবাহের ১ বছরেই তাদের কোলে আসে এক ফুটফুটে সন্তান আয়ান। ছেলে বড় হওয়ায় সাথে সাথে নির্যাতনের মাত্রা তীব্র হতে থাকে। এ বিষয়ে ছেলের পরিবারকে জানানোর পর তারা পারিবারিকভাবে মীমাংসা করে দিলেও নির্যাতন কোনভাবেই বন্ধ হয়নি। জীবন বাঁচাতে এক সময় শোভা তার সন্তানকে নিয়ে বাবার বাসায় পালিয়ে আসে । কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস সেখানেও তার ঠাই হলো না একটি রাতের জন্য। ছেলের পরিবারের লোকজন মেয়ের বাবা ও তার দুলা ভাইয়ের সাথে ধস্তাধস্তি করে মেয়েকে জোর করে নিয়ে যায় এবং বিভিন্ন ধরনের ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে। সেখান থেকে মেয়ে তার মামার বাসায় এসে আশ্রয় নেয়। তাকে চিকিৎসা করানো হয়। ৬ দিন মেয়ে তার মামার বাসায় থাকার পর যখন মামলার প্রস্তুতি গ্রহণ করে, তখন ছেলে তার মামাকে ফোনে হুমকি ও অতান্ত খারাপ ভাষায় গালিগালাজ করে।

মামলা জমা দেওয়ার দিন ভোরে মেয়ে তার ছেলেকে নিয়ে রাস্তায় হাঁটতে বের হলে উৎপেতে থাকা তার স্বামী তাকে ও তার ছেলেকে জোরপূর্বক ধরে নিয়ে যায়। মেয়েকে নিয়ে ছেলে (জামাই) তার বাসায় যায়নি, কোথায় আছে তা এখনও জানা যায়নি । অনেক খোঁজাখুজির পরও মেয়েকে পাওয়া যায়নি । এখন মেয়ে ও তার সন্তানকে ভয় দেখিয়ে পরিবারের নামে উল্টো স্বাক্ষী দেয়ানোর জন্য মেয়েকে নির্যাতন করছে । আমরা যাতে মামলা উঠিয়ে নেই। মেয়ের বাবা, তার বড় বোন, তার মামা, তার দুলাভাই এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে । মেয়ের বাবার আর্তনাথ, মেয়েকে ফিরে পাওয়ার জন্য প্রশাসনের সহযোগিতায় ছেলেকে আইনের হাতে তুলে দেওয়ায় জন্য সুদৃষ্টি কমনা করছি।