সোমবার ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ৮ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

যৌতুকের টাকা না দেয়ায় স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ে- প্রথম স্ত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা…..

আপডেটঃ ১:০৮ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

শাহরাস্তি (চাঁদপুর) প্রতিনিধিঃ চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে যৌতুকের টাকার পরিশোধ না করায় স্বামী দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন। খবর পেয়ে প্রথম স্ত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছেন। ঘটনাটি উপজেলার কেশরাঙ্গা গ্রামে ঘটে।জানা যায়, ওই গ্রামের পূর্ব পালের বাড়ির আবদুস সাত্তারের ভাগিনা আজাদ হোসেন ২০০৮ সালে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার উত্তর ডল্টা ভরাবাড়ির নুরুল ইসলামের মেয়ে নুরজাহান আক্তার রত্নাকে বিয়ে করেন।বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের টাকার জন্য রত্নাকে মানসিক যন্ত্রণা ও শারিরীক নির্যাতন করতেন তার স্বামী পরিবার।এবিষয়ে রত্না বলেন, বিয়ের পর থেকেই  স্বামীর সংসার যৌতুকের টাকার জন্য আমাকে চাপ দিতো। আমি তাদের দাবিকৃত টাকা দিতে না পারায় আমার স্বামী আজাদ আমাকে বেদম প্রহার করতো। অসহ্য হয়ে সন্তানদের নিয়ে পিতার বাড়িতে আশ্রয় গ্রহন করি। তিনি আরও বলেন, আমার পিতা দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ হয়ে বিছানায় শষ্যায়িত। অনেক দুঃখে কষ্টে আমার পিতা পরিবারের সংসার চলে। বিয়ের সময় তারা ৫০ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করেন। তখন আমার পিতা তাদেরকে ২৫ হাজার টাকা প্রদান করেন। আর বাকি টাকার জন্যই তারা আমাকে প্রায় দিন নির্যাতন করতেন। আজাদ কথায় কথায় ধমক দিয়ে বলতেন তিনি আবার বিয়ে করে যৌতুক নিবেন আর আমাকে তাড়িয়ে দিবেন। আমি আমার এই জীবন রাখতে চাইনি বলে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করতে চেয়েছি, কিন্তু পারলাম না। আমার ওরা আমাকে বাঁচিয়ে ফেলেছেন। আমি এখন কোথায় যাবো, কার কাছে যাবো- কথাগুলো বলতে বলতে তিনি কাঁন্নায় ভেঙ্গে পড়লেন।রত্নার বাড়ির লোকজন বলেন, স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ের কথা শুনে স্ত্রী রত্না গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলো। বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে।আজাদের বাড়িতে গিয়ে তাকে পাওয়া যায় নি। এবিষয়ে তার মামা আবদুস সাত্তারকে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, আজাদের বাবা ছোট বেলা মারা যায়। তখন আমার বোন হাজেরা বেগমকে নিয়ে আসি আর অন্যত্র বিয়ে দেই। ভাগিনা আমাদের বাড়িতেই বড় হয়। তাকে আমি নিজেই বিয়ে দেই। বিয়ের পর থেকেই তার স্ত্রী রত্নাকে নিয়ে সুখেই ছিলো তারা। হঠাৎ তাদের মধ্যে টাকা-পয়সা সংক্রান্ত বিষয়ে কথা কাটাকাটি শুরু করে। এধরনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে হাতাহাতি হয়।এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, আমার ভাগিনা আজাদ দ্বিতীয় বিয়ে করেছে। তার বউ এখন আমাদের বাড়িতে আছে।আজাদের দ্বিতীয় স্ত্রী রুনু বলেন, আমার বাড়ি চট্টগ্রামের ফিরোজশাহ কলোনীতে।আজাদ আমাকে বিয়ে করেছে। সাড়ে ৩ লক্ষ টাকার কাবিন হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আজাদ তার প্রথম স্ত্রীকে তালাক দিয়েই আমাকে বিয়ে করেছে। এখন শুনি ওই স্ত্রী এখনও আছে। আজাদ আমাকে মিথ্যে বলেছে। আমি জানিনা আমার ভবিষ্যত গন্তব্য কোথায়।