সোমবার ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

নওগাঁয় আ’লীগ নেতাকে হত্যা চেষ্টায় পরিকল্পিত হামলা !

আপডেটঃ ২:৩৩ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

ইখতিয়ার উদ্দীন আজাদ, নওগাঁ –নওগাঁর পত্নীতলায় আ’লীগের প্রবীণ নেতা আব্দুল জলিল (৬০) কে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা চেষ্টায় হামলার শিকার হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার জুম্মা নামাজ শেষে মসজিদ থেকে তিনি নিজ বাসা উপজেলা সদর নজিপুর পৌর এলাকার সরদারপাড়া ফিরার পথিমধ্যে হামলার ঘটনাটি ঘটেছে। বর্তমানে তিনি উপজেলা সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
জানা যায়, জমি সংক্রান্ত জেরে জেলার ধামইরহাট উপজেলার ৪নং উমার ইউনিয়নের গাংরা গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজ চৌধুরীর পুত্র মাজেদুর রহমান (৫৫) এ হত্যা চেষ্টার পরিকল্পনাকারী।
হামলার শিকার ভুক্তভোগী ধামইরহাট উপজেলা আ’লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ও গাংরা ইসলামীয়া বহুমুখী আলিম মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মৃত ফজের আলীর পুত্র ক্বারী মোঃ আব্দুল জলিল (৬০) পত্নীতলা সরকারি হাসপাতালে ভর্তিরত অবস্থায় এ প্রতিবেদককে জানান, নজিপুর আহলে হাদিস মসজিদ হতে নিজ বাসা ফিরার পথিমধ্যে পরিকল্পিত ভাবে মাজেদুর রহমানের উপস্থিতিতে দিক নির্দেশনায় অজ্ঞাত ৩ জন ভাড়াটে দুর্বৃত্ত আমাকে লোহার রড দিয়ে প্রথমে মাথায় আঘাতের চেষ্টা করলে তা হাত দিয়ে প্রতিহত করি। পরে দুর্বৃত্তরা আমার পা, মাজাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় মসজিদের মুসল্লিরা ঘটনাটি দেখতে পেয়ে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করান। তিনি আরো জানান, বিবাদমান জমি সংক্রান্ত আদালতের রায় থাকার পরেও জেলার ধামইরহাট উপজেলার ৪নং উমার ইউনিয়নের গাংরা গ্রামের জমি একাধিকবার দখল চেষ্টা ও আমাকে হত্যা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। উল্লেখ্য যে, গত ঈদ উল ফিতরের পরের দিন আমার নজিপুরের বাসার সামনে মাজেদুর রহমান ৪/৫ জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে নিয়ে এসে আমার পরিবার ও আমাকে উদ্দেশ্য করে অসৎ পরিকল্পনা করেন। যাহা আমার প্রতিবেশিরা অবগত রয়েছেন।
ভুক্তভোগীর পুত্র সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ হত্যা চেষ্টার পরিকল্পনাকারী জেলার ধামইরহাট উপজেলার ৪নং উমার ইউনিয়নের গাংরা গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজ চৌধুরীর পুত্র মাজেদুর রহমান (৫৫) নামে থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।
পত্নীতলা থানা ওসি পরিমল কুমার চক্রবর্তী জানান, ঘটনাটির অভিযোগ পেয়েছি। থানার এক জন এসআই ঘটনাস্থল হতে হামলার ব্যবহৃত লোহার রড আলামত হিসেবে জব্দ করেন। তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় আইনত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হইবে।