বৃহস্পতিবার ১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং ৩০শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

অসহায় শিল্পীর আকুতি- একটি বসত ঘর জীবন বদলে দিতে পারে

আপডেটঃ ৯:৪৫ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ০৭, ২০১৯

রাফিউ হাসানঃ দিনমজুর স্বামীর অস্বচ্ছল পরিবারে দুটি সন্তান নিয়ে অসহায়ের জীবন যাপন করছি। একমাত্র কন্যাটি প্রতিবন্ধী। স্বামীর স্বল্প উপার্জনে আহারের ব্যবস্থাতেই টানাটানি। ঝরাজ্বীর্ণ ঘরে বসবাস করা অতি কষ্ট সাধ্য। যেখানে বৃষ্টির পানি পড়তেই ঘরে প্রবেশ করে।
আমি শুনেছি অসহায় ও গরীবের বন্ধু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্থানিয় সংসদসদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম মহোদয়ের মাধ্যমে গৃহহীন মানুষকে একটি করে বসত ঘর দিচ্ছেন। আমি তখন এমপি সাহেবের কাছে একটি ঘর পাওয়ার আশায় আবেদন করি। আমার মত অসহায় আর আছে কি না তা জানিনা। তবে একটি সরকারী ঘর আমি এবং আমার পরিবারের জীবন বদলে দিবে- আবেগ ভরা আকুতি নিয়ে কথাগুলো বলেছেন চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার মেহের উত্তর ইউনিয়নের নায়নগর হাজী বাড়ির ইমান হোসাইনের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদাউস শিল্পী।

জানা যায়, ওই বাড়ির মৃত শাহজাহানের একমাত্র পুত্র মোঃ ইমান হোসাইন দিনমজুরী করে কোন মতে তাদের ৪ জনের সংসার জীবন অতিবাহিত করেন। একমাত্র ছেলে মোঃ তাজুল ইসলাম (১৩) সুয়াপাড়া জিকে উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ে আর মেয়ে ফারজানা আক্তার (৭) প্রতিবন্ধী। একমাত্র ঝরাজ্বীর্ণ বসত ঘরটি প্রতিনিয়ত তাদের স্বপ্ন ভঙ্গের কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এবিষয়ে ওই বাড়ি ও গ্রামের লোকজন বলেন, শিল্পী ও তার পরিবার অনেক অসহায়। তারাই প্রকৃত গৃহহীন। তাই তাদেরকে একটি বসত ঘর দেয়া একান্ত প্রয়োজন বলে তারা মনে করেন।

স্থানিয় ইউপি সদস্য জুলহাস বলেন, শিল্পীর স্বামী পরিবার অত্যন্ত গরীব ও অসহায়। আমি তাদের সম্পর্কে জানি। একটি সরকারী ঘর হলে তাদের আবাসন দূর্দশা দূর হবে। তাই এই ঘরটি দেয়ার ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে তিনি বিশেষ ভাবে অনুরোধ জানান।

ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মনির হোসেন বলেন, এই পরিবারটি আমার নির্বাচনী এলাকার। তারা অত্যন্ত গরীব। তাদের একমাত্র মেয়েটি প্রতিবন্ধী। যাকে আমি প্রতিবন্ধীর কার্ড করে দিয়েছি। তাদের একটি বসত ঘরের খুব প্রয়োজন। একটি সরকারী ঘর পাওয়া তাদের নাগরিক ন্যায্য অধিকার। সঠিক মাত্রায় ও সঠিক নিয়মে তারা এই ঘরটি পাওয়ার অধিকার রাখে। তাই চাঁদপুর-৫ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম মহোদয়সহ উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের সুনজর কামনা করেন তিনি।