শুক্রবার ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

বেরাইদ-সাঁতারকুল এলাকার দখল করা খাল গুলো পুনরুদ্বার করে সেখানে হাতিরঝিলের মতো দৃষ্টিনন্দন করে গড়ে তোলা হবে —-আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম

আপডেটঃ ৪:০৭ পূর্বাহ্ণ | জানুয়ারি ২২, ২০২০

এস,এম,মনির হোসেন জীবন : বেরাইদ ও সাঁতারকুল এলাকার দখল করা খাল গুলো পুনরুদ্বার করে সেখানে হাতিরঝিলের মতো দৃষ্টিনন্দন করে আগামীতে গড়ে তোলা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী আতিকুল ইসলাম।

শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়ন কথা জনগন ও ভোটারদের স্বরণ করিয়ে দিয়ে ক্ষমতাসীন দলের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেন, ডিএনসিসির নতুন এই ১৮টি ওয়ার্ডের জন্য চার হাজার ২০০ কোটি টাকার বরাদ্দ একনেকে পাস হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে।
এসময় আতিকুল ইসলাম ভোটারদের উদ্দেশে বলেন, নতুন ওয়ার্ড গুলোকে নিয়ে ইতি মধ্যে মাস্টার মাস্টারপ্ল্যান তৈরী করা হয়েছে। কোন দিক দিয়ে রাস্তা হবে, কোথায় ড্রেন, ফুটপাত হবে নগর পরিকল্পনাবিদদের নিয়ে সব পরিকল্পনা করা হয়েছে। গুলশান, বনানী বারিধারায় যেসব রাস্তা আপনারা দেখেছেন, তার চেয়েও আরও সুন্দর রাস্তা বেরাইদ ও সাতারকুল হবে, ইনশাআল্লাহ।
আজ মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর বেরাাইদ মুসলিম হাই স্কুল মাঠে নির্বাচনীর গণসংযোগের একাদশ দিনে আয়োজিত এক পথসভায় বক্তৃতা কালে তিনি এসব কথা বলেন।
ক্ষমতাসীন দলের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বেরাইদ এলাকাবাসি ও ভোটারদের উদ্দেশে বলেন, রাজধানীর রামপুরা হাতিরঝিলে অনেক খাল দখল করা হয়েছিল। সেগুলো আমার আমলে উদ্ধার করা হয়েছে।
আতিকুল ইসলাম বলেন, আমি যদি মেয়র হতে পারি এবং আপনারা যদি আমাকে নৌকায় ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেন তাহলে বেরাইদ এলাকায় যে সব খাল রয়েছে সেগুলোকে রামপুরা হাতিরঝিলের চেয়ে আরও সুন্দর এবং দৃষ্টিনন্দন করে গড়ে তুলবো। বেরাইদবাসীকে আর কষ্ট করে হাতিরঝিল যেতে হবে না। এটিই হবে হাতিরঝিল থেকে সুন্দর।
এলাকাবাসি,ভোটার ও ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেন,ডিএনসিসি’র ৪২ নম্বর ওয়ার্ডসহ নতুন ওয়ার্ড গুলোর মানোন্নয়নে নগর পরিকল্পনাবিদদের নিয়ে একটি মাস্টারপ্ল্যান করা হয়েছে।
আওয়ামীলীগ সভানেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তার সরকারের উদৃ¦তি দিয়ে আতিকুল ইসলাম বলেন, এবিষয়ে সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় ও এলজিইডি’র সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। বেরাইদ এলাকার প্রতিটি রাস্তা ও ড্রেন প্রশ্রস্থ করে গড়ে তোলা হবে। রাস্তায় হবে ড্রেন এবং আলোকিত বাতি। কথা দিচ্ছি, আমি মেয়র নির্বাচিত হলে বেরাইদ এলাকাটি হবে গুলশান-বনানী থেকে উন্নত।
তিনি আরও বলেন, বিগত নয় মাসে বেরাইদ এখানকার রাস্তার অবস্থা এখন আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে ভালো আছে। তাহলে ইনশাআল্লাহ নতুন যুক্ত হওয়া ওয়ার্ডগুলোর চেহারা বদলে যাবে। নৌকার কোনো ব্যাক গিয়ার নেই, নৌকার শুধু ফ্রন্ট গিয়ার, ফ্রন্ট গিয়ার মানে শুধু উন্নয়নের গিয়ার।
মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেন, আসন্ন ঢাকা সিটি নির্বাচনে আমি যদি মেয়র হিসেবে জয়লাভ করি তাহলে আমি সবাইকে সাথে নিয়ে সুস্থ, সচল ও গতিময় ঢাকা গড়ে তুলবো।
এ সময় ডিএনসিসি ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রাার্থী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমকে জনগনের সামনে পরিচয় করিয়ে দেন মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম। পরে তিনি গণসংযোগের ১২তম দিনে ডিএনসিসি ৪২ নম্বর ওয়ার্ড, বেরাইদ মুসলিম হাই স্কুল এলাকা, নতুন বাজার, সাঁতারকুল রোড, উত্তর বাড্ডা, মোল্লাপাড়া, হাজীপাড়া, বাড্ডা, মধ্যবাড্ডা, পশ্চিম নূরের চালা, উত্তর ও দক্ষিণ নয়ানগর এবং সোল মাইদ এলাকায় গণসংযোগের মাধ্যমে নৌকার পক্ষে ভোট চাইবেন আতিকুল ইসলাম।
আজ মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর ভাটারা থানার নতুন বাজার ১০০ ফিট রাস্তা থেকে নির্বাচনী এলাকায় নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনা ও গনসংযোগ করেন মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম ।
আজ মঙ্গলবার সকালে আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলামের নির্বাচনী প্রচারনাও গণসংযোগের পথসভায় অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল, আওয়ামী লীগ ঢাকা মহানগর উত্তর কমিটির সভাপতি শেখ বজলুল এবং সাধারণ সম্পাদক মান্নান কচি, চলচিত্র অভিনেতা নায়ক ফেরদৌস সহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচছাসেবকলীগ, জাতীয় শ্রমিকলীগ,মহানগর উত্তর, বিভিন্ন থানা –ওয়ার্ডেও নেতৃবৃন্দ এবং সহযোগী অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য যে, গত ১০ জানুয়ারি ক্ষমতাসীন দলের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম উত্তরা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে তার প্রচার-প্রচারনা ও নির্বাচনী গণসংযোগ শুরু করেন। নতুন তারিখ অনুযায়ী আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। দুই সিটির প্রতিটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হবে ইভিএমের মাধ্যমে। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একটানা চলবে ভোট গ্রহণ।