শনিবার ২৮শে নভেম্বর, ২০২০ ইং ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

শ্রমিক নেত্রী মীশু আটক, সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক

আপডেটঃ ৫:২৫ অপরাহ্ণ | আগস্ট ০৭, ২০১৪

তোবা গার্মেন্টস এর শ্রমিক কর্মচারীদের বকেয়া বেতন ভাতা না দেয়ায় এবং আন্দোলনরত শ্রমিকদের ওপর পুলিশী নির্যাতনের প্রতিবাদে সারাদেশে সকল শিল্প প্রতিষ্ঠানে অনির্দিষ্টকালের শ্রমিক ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে গার্মেন্ট শ্রমিক ঐক্য ফোরাম এবং তোবা গ্রুপ সংগ্রাম কমিটি।

একইসঙ্গে আজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টা থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আবারো অনশন এবং বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন তারা।

তোবা গার্মেন্টস থেকে আন্দোলনরত শ্রমিকদের পুলিশ বের করে দিলে তোবা গ্রুপ শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের সমন্বয়ক মোশরেফা মীশু আজ এ কর্মসূচির ঘোষণা দেন। এ ঘোষণার পরেই মোশরেফা মীশু ও গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জলি তাকুকদারকে আটক করে পুলিশ।

বকেয়া বেতনভাতাসহ পাঁচ দফা দাবিতে বাড্ডার ওই কারখানা ভবনেই গত ১২ দিন ধরে অনশন চালিয়ে আসছিলেন তোবা গ্রুপের শ্রমিকরা। বিজিএমইএ আংশিক বকেয়া দেয়া শুরু করলেও তা প্রত্যাখ্যান করে সংগ্রাম কমিটি।

কারখানা থেকে নামিয়ে আনার পর তোবা গ্রুপ শ্রমিক সংগ্রাম কমিটির সমন্বয়ক মোশরেফা মিশু ও বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সহ-সাধারণ সম্পাদক জলি তালুকদারকে আটক করে গাড়িতে করে নিয়ে যায় পুলিশ।

আটক হওয়ার আগে মোশরেফা মিশু নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেন বলে জানান গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সমন্বয়ক তাসলিমা আক্তার।
তিনি বলেন, “মিশু আপা আটক হওয়ার আগে তিন দফা কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন। এখন থেকে সারা দেশে সব পোশাক কারখানায় অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট চলবে।”

এসময় পুলিশ নিউএজ পত্রিকার ফটো সাংবাদিক আব্দুল্লাহ অপুকে লাঠিজচার্জ করে । পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে পুলিশের হাতাহতির ঘটনা ঘটে।

এর আগে, দুপুর ১টার দিকে তোবা গ্রুপের শ্রমিকদের বেতনা-ভাতার দাবিতে অন্য গার্মেন্টসের শ্রমিকরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ শুরু করে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শ্রমিকদের লক্ষ্য করে রাবার বুলেট, জলকামান ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করলে শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে পাল্টা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে।