শুক্রবার ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ইং ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

চাকরী দেয়ার নামে দেহ ব্যবসা: আটক ১

আপডেটঃ ৫:৪৮ অপরাহ্ণ | আগস্ট ০৭, ২০১৪

চাঁদপুরের কচুয়ায় ময়না আক্তার নামের এক নারী অপহরণকারীকে জনতা আটক করে পুলিশের নিকট সোপার্দ করেছে।

থানায় দায়ের হওয়া মামলা সূত্রে জানা যায়, কচুয়া উপজেলার পনশাহী গ্রামের নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া একটি মেয়ে (১৪) একই বাড়ীর তার চাচী ময়না বেগম (২৫) গত ০১ জুন সন্ধ্যায় গার্মেন্টসে চাকরী দেয়ার নাম করে বাড়ী থেকে বের করে নিয়ে স্বামী কাঞ্চনসহ তাকে ১২/১৩ দিন যাবৎ সিলেট ও ঢাকার বিভিন্ন স্থানের অজ্ঞাত বাসায় রাখার পর ফকিরাপুলের মিনু আক্তার নামের এক দেহ ব্যবসায়ীর কাছে ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেয়।

মিনু আক্তার ফকিরাপুলের ৬তলা ভবনের ৬ষ্ঠ তলায় তার আবাসিক কক্ষে মেয়েটিকে দিয়ে জোরপূর্বক দেহ ব্যবসার কাজ চালিয়ে আসে। প্রায় দেড় মাস যাবৎ এ ব্যবসা চালিয়ে আসার এক পর্যায়ে মেয়েটি গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে গত ০১ আগষ্ট ঘুম থেকে উঠে লাকী আক্তার সু-কৌশলে কক্ষ থেকে পালিয়ে বাড়ী চলে এসে তার পিতা-মাতার নিকট বিস্তারিত ঘটনা জানায়।

মেয়েটির দেওয়া তথ্যানুসারে মিনু আক্তার আরো ৩ যুবতীকে দিয়ে তার বাসায় দেহ ব্যবসার কাজ চালিয়ে আসছে।

এ ঘটনাটি স্থানীয় এলাকাবাসীরা জানার পর প্রচন্ড ক্ষুব্ধ হয়ে ময়নাকে আটক করে গতকাল বৃহস্পতিবার কচুয়া থানা পুলিশের কাছে সোপার্দ করে। এ ব্যাপারে মেয়েটির পিতা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে কচুয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

কচুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর হোসেন মজুমদার জানান, মেয়েটির দেওয়া বক্তব্য অনুসারে অন্যান্য দোষী ব্যক্তিদের গ্রেফতারের জন্য জোর অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।