বুধবার ১৯শে মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

‘জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার জন্য’

আপডেটঃ ৬:০১ অপরাহ্ণ | আগস্ট ০৭, ২০১৪

আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা সংবাদপত্র ও অনলাইন মিডিয়ার জন্য নয়। এটা শুধু ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার জন্য।

‘সংবাদপত্রের কণ্ঠরোধের জন্য সম্প্রচার নীতিমালা করা হয়েছে’ গতকাল বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির খাজা নিজাম উদ্দিন মিলনায়তনে তিনি একথা বলেন। স্বাধীনতা ফোরাম শোক দিবস উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

হাছান মাহমুদ বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা ভালভাবে না পড়ে না জেনেই বক্তব্য দিয়েছেন। বাংলাদেশে ইলেক্ট্রনিক্স, প্রিন্ট ও ওয়েব পোর্টাল মিডিয়া রয়েছে। এর মধ্যে শুধু যারা সম্প্রচার করে তাদের জন্য এই নীতিমালা। ইউরোপ আমেরিকাসহ বিভিন্ন উন্নত দেশে গণমাধ্যমের জন্য সুনির্দিষ্ট নীতিমালা করে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও দায়িত্বশীলতা নিশ্চিত করেছে। বাংলাদেশে সেটাই করা হচ্ছে।

বিএনপির নেতাদের নামে মামলাগুলো আবার চাঙ্গা করা হচ্ছে বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের দমণ পিড়নের লক্ষ্যে, ফখরুলের এমন দাবিকে নাকচ করে তিনি বলেন, ২০১৩ সালের শেষের দিকে সারাদেশব্যাপী বিএনপির নেতৃত্বে যে রক্তের হলি খেলা হয়েছে, তারপরেও তারা কিভাবে স্বাভাবিক জীবনযাপন করছে সেটা প্রশ্ন সাপেক্ষ ব্যাপার।

আদালত ও বিচারকদের প্রতি আহ্বান করে তিনি বলেন, তাদের মামলাগুলোর দ্রুত নিষ্পত্তির মাধ্যমে তাদের প্রাপ্য শাস্তি নিশ্চিত করা হোক।

তিনি আরো বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠকের পর দেশব্যাপী যদি নৈরাজ্যকর কর্মসূচী দেয় তবে সরকার তা মোকাবেলায় কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

তোবা গার্মেন্টের শ্রমিকদের বেতন ভাতা নিয়ে যা করা হচ্ছে তা কারো কাম্য নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, গতকাল বিজেএমইএ থেকে তোবা গার্মেন্টের অর্ধেক শ্রমিক দুই মাসের বকেয়া বেতন নিয়েছে। বাকীদের কাগজপত্র ও আইডি কার্ড কেড়ে নিয়েছে গাড়ীতে করে আসা শ্রমিক নেতারা। যে কারণে তারা বেতন নিতে আসতে পারেনি।

মূলত গার্মেন্ট সেক্টরকে ধ্বংস করার জন্য দেশি ও বিদেশি ষড়যন্ত্র চলছে। এই ব্যাপারে সরকার ও বিজেএমইএকে তড়িৎ ব্যবস্থা নেয়ারও আহ্বান জানান আওয়ামীলীগের এই নেতা।