মঙ্গলবার ৭ই জুলাই, ২০২০ ইং ২৩শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

সংসদের ৩০০ জনকে করোনা পরীক্ষার নির্দেশ….

আপডেটঃ ৮:৪৬ অপরাহ্ণ | জুন ০৮, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক -: করোনা ভাইরাস সংক্রমণের মধ্যে আর মাত্র তিন দিন পর ১০ জুন বিকেল ৫ টায় ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের বাজেট অধিবেশন শুরু হতে চলেছে। ইতোমধ্যে জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে করোনা সংক্রমণ নিয়ে সবার মধ্যে একরকম ভীতি সৃষ্টি হয়েছে। কেননা ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন কর্মী ছাড়াও প্রায় ১৭৫ জন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়ে করেনটাইনে রয়েছেন।
এমতাবস্থায় স্বল্প পরিসরে সংসদের বাজেট অধিবেশনটি পার করতে চাইছে সংসদ সচিবালয়। কোনো কর্মী ও মন্ত্রী এমপিরা সংসদে উপস্থিত হয়ে যাতে আর করোনা আক্রান্ত না হন সে কারণে সংসদে দায়িত্বরত প্রায় ৩০০ কর্মকর্তা-কর্মচারীর করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পরীক্ষার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
একাদশ জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন উপলক্ষে এ নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে। তবে মন্ত্রী এমপিদের করোনা টেস্টের বিষয়ে সচিবালয় কোন আবেদন জানায়নি। তারা নিজে মনে করলে করোনা টেস্ট করাবেন।
বাজেট অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অংশ নেয়ার কথা রয়েছে। তাদের সংস্পর্শে আসতে পারেন এমন কর্মকর্তা-কর্মচারী ছাড়াও অধিবেশন কক্ষে দায়িত্ব পালন করবেন এমন কর্মকর্তা, ক্যামেরাপারসন, সংসদের কমিশন ও কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে অংশ নেবেন এমন ব্যক্তি এবং তাদের সংস্পর্শে থাকবেন এমন স্ব স্ব শাখা-অধিশাখার সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর তালিকা করে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হচ্ছে।
শনিবার (৬ জুন) সংসদ মেডিকেল সেন্টারের চিফ মেডিকেল অফিসার আরিফুল হক গণমাধ্যমকে বলেন, করোনাভাইরাসের পরীক্ষা কতজনের করা হবে, তার প্রকৃত সংখ্যা বলা যাচ্ছে না। কারণ প্রতিনিয়ত তালিকায় সংযোজন-বিয়োজন হচ্ছে। তবে প্রায় তিনশ জনের মতো কর্মকর্তা-কর্মচারীকে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, কয়েকদিন আগে শুরু হওয়া এই পরীক্ষায় এখন পর্যন্ত কারও শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতির খবর পাওয়া যায়নি।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, করোনা পরীক্ষার জন্য সংসদ সদস্য মেম্বারস ক্লাবে একটি বুথ তৈরি করা হয়েছে। সেখানে নমুনা নিয়ে হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। তবে অধিবেশনে অংশ নেয়া এমপিদের করোনা পরীক্ষা সচিবালয় সূত্রে করানো হচ্ছে না বলে নিশ্চিত করেছেন সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী । তিনি বলেন, সংসদে যাদের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার দরকার ছিল তাদেরটা করাচ্ছি। এছাড়া অনেকে নিজ নিজ উদ্যোগে পরীক্ষা করাচ্ছেন।
এমপিদের পরীক্ষার ব্যাপারে চিফ হুইপ বলেন, সংসদ সদস্যদের ব্যাপারে আমাদের কোনো নির্দেশনা নেই। কারণ আজকে টেস্ট করলাম কালকে যে পজেটিভ হবে না তার কোনো গ্যারান্টি আছে? তবে নিজেদের সেভ করার জন্য টেস্ট করলে ভালো। আমরা কীভাবে বলবো, তারা নিজেরা মনে করলে করবেন।
তবে এমপিদের করোনা পরীক্ষা না করায় সংসদে কর্মরতদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। কারণ এ পর্যন্ত ছয়জন এমপি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। একজন প্রতিমন্ত্রীর বাসায় কর্মরত চারজনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। এজন্য সংসদ যোগ দেবেন এমন এমপিদেরও করোনা পরীক্ষার পরামর্শ দিচ্ছেন অনেকে। এছাড়া চট্টগ্রামের একজন সংসদ সদস্যের বাসায় তিনি ও তার পরিবারের সদস্যসহ প্রায় ১১ জন আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে।
সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, জামালপুর-২ আসনের এমপি ফরিদুল হক খান দুলাল, চট্টগ্রাম-১৬ আসনের এমপি মো. মোস্তাফিজুর রহমান (সপরিবার), চট্টগ্রাম-৬ আসনের এমপি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী, নওগাঁ-২ আসনের শহীদুজ্জামান সরকার এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনের মোহাম্মদ এবাদুল করিম বুলবুল করোনায় আক্রান্ত হন। এর মধ্যে শহীদুজ্জামান সরকার ও এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী করোনাকে জয় করেছেন।
আগামী ১০ জুন শুরু হচ্ছে ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট অধিবেশন। অধিবেশন শুরুর পরের দিন অর্থাৎ ১১ জুন বাজেট উত্থাপন হবে। এটি পাস হবে ৩০ জুন। বাজেট অধিবেশন ঘিরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে অনেকগুলো নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হচ্ছে।
সংসদের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, বাজেট অধিবেশনের কার্যদিবস হতে পারে মাত্র সাতটি। করোনার কারণে গুরুত্বপূর্ণ অধিবেশনটি মুলতবি রেখে স্বল্প সময় চালানো হবে। অধিবেশন কক্ষে বসার সময় যেন নির্দিষ্ট দূরত্ব থাকে সে অনুযায়ী তালিকা করে এমপিদের ফোন দেয়া হবে। যারা ফোন পাবেন শুধু তাদেরই যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হবে।