সোমবার ১৮ই জানুয়ারি, ২০২১ ইং ৪ঠা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

সাঈদ খোকনের মামলার আদেশ ১৯ জানুয়ারি…

আপডেটঃ ৩:০২ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ১২, ২০২১

বিশেষ প্রতিনিধি:– ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসকে নিয়ে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে দুই মামলার আদেশের দিন ধার্য করেছেন আদালত।  

আজ মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরীর আদালত আগামী ১৯ জানুয়ারি ধার্য করেন। এদিন সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে পৃথক দুই মামলা গ্রহণের বিষয়ে আদেশের জন্য ধার্য ছিল। কিন্তু বিচারক আজ আদেশ না দিয়ে নতুন দিন ধার্য করেন।

গতকাল সোমবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর আদালতে কাজী আনিসুর রহমান ও অ্যাডভোকেট মো.সারওয়ার আলম বাদী হয়ে মামলা দুটি করেন। আদালত দুই বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করেন। এরপর শুনানি শেষে আদালত আদেশের জন্য আজ মঙ্গলবার ধার্য করেন।

মো. সারোয়ার আলম তার মামলায় অভিযোগ করেন, সাঈদ খোকন গত শনিবার জাতীয় ঈদগাহ গেইটের সামনে ফুলবাড়িয়া মার্কেট উচ্ছেদ হওয়া ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন। সেখানে তিনি বলেন, ‘তাপস ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই দুর্নীতির বিরুদ্ধে গলাবাজি করে চলেছেন। আমি তাঁকে বলব রাঘব বোয়ালের মুখে চুনোপুঁটির গল্প মানায় না। কেননা দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়তে হলে সর্বপ্রথম তাঁর নিজেকে দুর্নীতিমুক্ত করতে হবে। তারপর চুনোপুঁটিদের দিকে দৃষ্টি দিতে হবে। অথচ তিনি উল্টো কাজ করছেন।

সেদিন খোকন আরও বলেন, ‘দায়িত্ব গ্রহণের পর তাপস ডিএসসিসির শত শত কোটি টাকা তাঁর নিজ মালিকানাধীন মধুমতি ব্যাংকে স্থানান্তর করেছেন।’ এই বক্তব্যের মাধ্যমে সাঈদ খোকন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের মানহানির শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন।

এর আগে গতকাল সোমবার সকাল ১১টার দিকে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন তাপস। তাপস বলেন,’গত শনিবার মানববন্ধনে উনি যে বক্তব্য দিয়েছেন তা মানহানিকর। এমন বিষোদগার ব্যক্তিগত আক্রোশ। মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ায় অবশ্যই উনার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।