বুধবার ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ ইং ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

কুষ্টিয়া পৌর নির্বাচন ২০২১ এ লাবলু গং কতৃক নৌকার ভোট প্রদানে বাধা দান ও সন্ত্রাসী রঞ্জু বাহিনীর তান্ডবের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন…

আপডেটঃ ১১:২৮ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ২৩, ২০২১

কুষ্টিয়ায় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতির বিরুদ্ধে সাধারন সম্পাদকের সংবাদ সম্মেলন………

শেখ নাজমুল হোসেন-: কুষ্টিয়া পৌর নির্বাচন ২০২১ এ লাবলু গং কতৃক নৌকার ভোট প্রদানে বাধা দান ও মিলপাড়া এলাকায় সন্ত্রাসী রঞ্জু বাহিনীর তান্ডবে টাকার বিনিময়ে হত্যার রাজনৈতিকর মিশন, মসজিদ/ঈদগাহ/রেলওয়ে ভূমির ন্যায় শেষ সম্বল ভিটা কেড়ে নেওয়ার মিশন ও পৌর ১০ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রনি খানের নামে মিথ্যা তথ্য ভিত্তিক সংবাদ সম্মেলনের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন হয়।গতকাল ২৩ জানুয়ারী বিকাল ৪ টার সময় মিলপাড়া মোহিনী মিলের ১ নং গেট প্রাঙ্গনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।সংবাদ সম্মেলনে  ১০ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রনি খান বলেন,১০ নং ওয়ার্ডের পরাজিত কাউন্সিলর গোলাম মোস্তফা লাভলু , ফজলে করীম খোকা, দ্বীন ইসলাম গং বিগত বছর গুলোতে মাদক,অস্ত্র,ধর্ষন,হামলা, সামাজিক প্রতারনা,ভূমি দখল,কিশোর গ্যাং, ত্রান দানে স্বজনপ্রীতি, মিথ্যা খবর প্রতিবেশন,সরকারি সম্পত্তি লোপাট,মহড়া, ধর্মীয় অনুভূমিতে আঘাত,উস্কানিমূলক বক্তব্য, অহংকার স্বেচ্ছাচারিতা সহ এমেন কোন খারাপ কাজ নেই যে তারা করেনা। এ ছাড়াও গত ১৭ জানুয়ারি বিকেলে মিলপাড়া দেবীপ্রসাদ স্পোর্টিং ক্লাবে মিথ্যা সাংবাদিক সম্মেলন করেন লাবলু। উক্ত সংবাদ সম্মেলনে লাবলুর পরিবেশিত সংবাদ ভিত্তিহীন,

কাল্পনিক,মগড়া,নির্র্লজ্জ মিথ্যাচারে ভরা। নৌকার দুর্গ খ্যাত এই ওয়ার্ডে জামাত বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এই গং মরিয়া। এদের মদদেই আওয়ামীলীগের প্রবীণ মুক্তিযোদ্ধা ও ত্যাগী নেতাদের হেন্থা ও অপপ্রচারের লিপ্ত রয়েছে একটি কুচক্রি মহল। এই কুচক্রি মহলের মদদেই ১০ নং ওয়ার্ডের গরীব অসহায় মানুষগুলো তাদের “ভিটা মাটি পরিচয়” হারানোর নীল নক্সার আশংকায় আছে বলে জানিয়েছেন রনি খান। রনি খান আরও বলেন,১৬ জানুয়ারী পৌর নির্বাচনের গননা শেষে ১০ নং ওয়ার্ডের মিলপাড়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রের ফলাফল নিয়ে রনি খান,রবিউল হক খান,নুর আলম সহ অনেকে নৌকা প্রতিকের অফিসে যায় অথচ মিথ্যাবাদী লাবলু কিভাবে বলে কিশোর কুমার ঘোষ জগৎ, রাজা, লিটন, রিপন, হাশেম, সোহেল, ছকো, কামারুল বিবিধ খোকার বাড়ীতে হামলা করেছে। এটি ১০০% মিথ্যা কথা। খোকার বাড়ী সিসি ফুটেজ দেখলেই সঠিকতার প্রমান হবে।ঐদিন রাতে খোকার বাড়ীর মধ্যে হারা বাহিনীর সকল সদস্য অবৈধ অস্ত্র ও লাঠি নিয়ে নাশকতার পরিকল্পনা করছিল।

শ্রী জগৎ আমার জানামতে গণনা শেষ হওয়ার আগেই জননেতা জনাব মাহাবুব-উল আলম হানিফ (এমপি) এর বাসভবনে, তার সাথে অবস্থান করছিলো, তিনি জয়ী সংবাদ পেয়ে এমপি মহোদয়ের হাত থেকে মিষ্টি মুখ করছিল। মিথ্যা বাদী লাবলু আরও বলেছে, আমি নাকি গুজবকারী দ্বীন ইসলামের বাড়ী ভাংচুর ও জীবননাশের হুমকি দিয়েছি।  দ্বীন ইসলাম একজন অস্ত্রবাজ। সে প্রায়শঃ বিভিন্ন নেতা ও আইন শৃংখলা বাহিনীর নিকট মিথ্যা তথ্য প্রদান করে যা ভিডিও আছে। আমি দৃঢ়তার সাথে বলতে ও প্রমান করতে পারি, খোকা গং-এর এই সংবাদ সম্মেলন পুরোটাই মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। শুধু তাই নয় লাবলু ১১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা হয়ে  কিভাবে ১০ নং ওয়ার্ডের সভাপতি পদ পাই, যাহা আমার বোধগম্য নয়। নির্বাচনের দিন লাবলুর সহযোগীতায় কিভাবে  খোকা সকাল ১০ টার সময় সাংবাদিক পরিচয় ধারন করে নৌকার পোলিং এজেন্টের গায়ে হাত তুলে, এটিও আমার বোধগম্য নয়। গডফাকার খোকাকে যিনি সাংবাদিকের মত এই মহান পরিচয় দিয়েছেন তাকে আমি আপনাদের মাধ্যমে ধিক্কার জানায়। সেই সাথে ওয়ার্ডের মধ্যে নৌকার বিপক্ষে কাজ করা এবং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সম্পর্কে মিথ্যা সংবাদ সম্মেলন করাকে আমি এক প্রকার অপরাধ মনে করি। দলের এই দায়িত্বশীল পদ  “ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি” পদে লাবলুর মত শিষ্টাচারহীন, শৃংখলা ভঙ্গকারী, দলের ভাবমুর্তি ক্ষুন্নকারী, দায়িত্ব জ্ঞানহীন ব্যক্তি, যোগ্য নয় বলে আমি মনে করি। তাকে অবিলম্বে এই পদ হতে অব্যাহতি দেওয়া হোক বলে আমি আশা করি। পরিশেষে আমার বিরুদ্ধে এই গংদের দ্বারা সংগঠিত সকল অপরাধের তদন্ত ও বিচার চাই। এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়া পৌরসভার ১০ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াহেদ খান রনি,জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক সাংবাদিক রবিউল হক খান, ১০ নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি রাজা,সাবেক ১০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জিয়াউল হক জিয়া,স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী সহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দরা।