রবিবার ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ ইং ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

করোনা টিকা নিলেন তুরাগ থানার ওসি (তদন্ত) সফিউল্লাহ….

আপডেটঃ ৪:১০ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২১

মোঃ ইলিয়াছ মোল্লাঃ করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়েছেন মানবিক পুলিশ কর্মকর্তা ও প্রথম সারির একজন করোনা যোদ্ধা, ডি এম পির তুরাগ থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ সফিউল্লাহ । বৃহস্পতিবার (১১ফেব্রুয়ারি ) সকাল ১১টায় ঢাকার আজিমপুর মা ও শিশু হাসপাতাল কেন্দ্রে টিকা নেন তিনি । করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন নেওয়ার পর ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ সফিউল্লাহ বলেন, ভ্যাকসিন নিয়ে দেশের মানুষের মধ্যে যে আতঙ্ক ছিল তা কেটে গেছে । এখন দলে দলে মানুষ ভ্যাকসিন নিচ্ছে । এ ভ্যাকসিন নিরাপদ। যারা এটি নিয়ে গুজব ছড়াতে চায় তাদের কথায় কান না দিয়ে আমি বলবো সবাই ভ্যাকসিন গ্রহণ করুন । ভ্যাকসিন নিয়ে নিজের অভিজ্ঞতা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমি ভ্যাকসিন নেয়ার সময় টেরও পাইনি । এখন পর্যন্ত আমি ভালো আছি । কোনো ভয় নেই । আমার কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়নি । এই টিকা আমাকে যেমন সুরক্ষিত করবে, তেমনি এই দেশকে করোনা থেকে সুরক্ষিত করবে । এর আগে গত ২৭ জানুয়ারি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পরীক্ষামূলক টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃস্পতিবার দেশব্যাপী করোনা টিকা দেওয়ার পঞ্চম দিন চলছে । গতকাল বুধবার সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সারাদেশে এক লাখ ৫৮ হাজার ৪৫১ জন করোনা টিকা নিয়েছে । ডি এম পির তুরাগ থানায় কর্মরত মানবিক এই পুলিশ কর্মকর্তা দেশে করোনা ভাইরাস আঘাত হানার পর থেকেই তিনি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ঝাঁপিয়ে পড়েন এবং পুলিশ বাহিনীসহ বিভিন্ন মহলে প্রশংসিত হন । তিনি বাংলাদেশ পুলিশ প্রধানের নির্দেশে এবং ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দিক নির্দেশনায় তুরাগ বাসিকে করোনার কবল থেকে বাঁচাতে সচেতন করার পাশাপাশি দুঃস্থদের মাঝে তার সাধ্যমত বিভিন্ন রকম সাহায্য সহযোগিতাও করেছেন । তার নিজের নামে উত্তোলনকৃত রেশনের মালামালও দুঃস্থদের মাঝে বিলিয়ে দিয়েছেন । এক পর্যায় করোনা যোদ্ধা মোহাম্মদ সফিউল্লাহ নিজেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়েন । আর এই সংবাদ বিভিন্ন গনমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তুরাগের অগণিত মানুষ মহান আল্লাহ্র দরবারে এই সাহসী পুলিশ অফিসারের জন্য দোয়া করেন । বেশ কিছুদিন কোভিড-১৯ এর সাথে যুদ্ধ করে আল্লাহ্র অশেষ রহমতে ও সকলের দোয়ায় স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসেন তিনি । তারপর নিজ কর্মস্থলে যোগদান করে সকলের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, আল্লাহ্র অশেষ রহমতে নিজের মনোবল, সকলের দোয়া এবং ভালোবাসায় আমি পুনরায় আপনাদের মাঝে ফিরে আসতে সক্ষম হয়েছি । আমি আক্রান্ত হওয়ার পর সবসময় একমাত্র আল্লাহ্র উপর ভরসা রেখেছি, নামাজ আদায় করেছি এবং সব সময় নফল ইবাদতের মধ্যে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছি । তাই আমি মনে করি এক মাত্র আল্লাহ্ই পারেন আমাদের সকল প্রকার বালা মসিবত থেকে রক্ষা করতে । ভ্যাকসিন গ্রহনের পর তিনি আরও বলেন, সকলেই সাবধানতা অবলম্বন করে চলবেন । নিজে সুস্থ থাকুন, নিজের পরিবার ও সকলকে সুস্থ রাখুন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে নির্ভয়ে ভ্যাকসিন নিন । আর আমি যেন মৃত্যুর আগ পর্যন্ত নিজের নীতি আদর্শ বজায় রেখে দেশ ও মানব সেবা করে যেতে পারি এই জন্য সকলের দোয়া চাই ।