শুক্রবার ৫ই মার্চ, ২০২১ ইং ২০শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

মোটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে গিয়ে দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালো দুই বন্ধু অপর ঘটনায় চালক নিহত…

আপডেটঃ ১০:৫৩ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১

ময়দুল ইসলাম, বদরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি-: রংপুরের বদরগঞ্জে তিন বন্ধু মিলে মোটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে বেরিয়ে দুইজন প্রাণ হারিয়েছেন। নিহতরা হলেন পৌরশহরের জামুবাড়ী ডাক্তারপাড়ার আনোয়ারুল ইসলামের ছেলে লাবু (১৭) ও পকিহানা গ্রামের আজম আলীর ছেলে মাসুম (১৭)। এদের মধ্যে উপজেলার ওসমানপুর গ্রামের রমজান আলীর ছেলে মামুনকে মুমুর্ষ অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। একই সময় অপর আরেকটি সড়ক দুর্ঘটনায় উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের পাঁচতেপথী গ্রামের শাহাজাদা মিয়ার ছেলে পাওয়ারটিলার চালক নয়ন মিয়া(২৪) নিহত হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার(২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে মোটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে যাওয়ার সময় সড়ক দুর্ঘটনাটি ঘটে বদরগঞ্জ উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের মধ্যপাড়া সড়কের খাগড়াবন্ধ এলাকায়। দ্বিতীয় সড়ক দুর্ঘটনাটি ঘটে আজ বিকেল চারদিকে বদরগঞ্জ-রংপুর সড়কের পাকারমাথা নামক স্থানে।
স্বজন ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, তিন বন্ধু লাবু, মাসুম ও মামুন মিলে মোটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে বের হন। মোটরসাইকেল নিয়ে পার্বতীপুরের মধ্যপাড়া কঠিন শিলা সড়কের ঘৃলাই নদীর সেতুতে উঠলে বিপরিত দিক থেকে আসা কয়লাবহনকারী একটি ট্রাকের সঙ্গে তাদের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে লাবু ও মাসুমের পায়ের ওপর দিয়ে ট্রাকের একটি চাকা চলে যায়। এসময় মামুন পাশের খাদে ছিটকে পড়ে। স্থানীয় লোকজন এদেরকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার সময় লাবু ও মাসুম প্রাণ হারান। মুমুর্ষ অবস্থায় মামুনকে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে।
একইদিন বিকেলে পাওয়ারটিলারে ইট বোঝাই করে যাওয়ার সময় ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে নয়ন মিয়া নিহত হন।
বদরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা(আরএমও) নাজমুল হোসাইন জানান, পৃথকভাবে দুর্ঘটনায় আহত চারজনকে হাসপাতালে আনা হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে এদের মধ্যে তিনজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।
বদরগঞ্জ থানার ওসি হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, মোটরসাইকেল আরোহীকে পিষ্ট করা ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়েছে। ঘাতক ট্রাকের চালক পালিয়ে যায়। নিহতদের স্বজনরা আইনগত ব্যবস্থা নিতে চাইলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।