বুধবার ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ ইং ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

ভালুকায় শিশু ও প্রতিবন্ধী-সহ ধর্ষণের শিকার ৩

আপডেটঃ ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ | মার্চ ২১, ২০২১

গোলামে মোস্তফা, ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ভালুকায় পঞ্চম শ্রেণীর এক শিশু শিক্ষার্থী ও প্রতিবন্ধীসহ তিনজন ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ঘটনাটি তিনটি ঘটেছে উপজেলার রান্দিয়া, হবিরবাড়ি ও মাহমুদপুর গ্রামে। এসব ঘটনায় পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করেছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে ভালুকা উপজেলার রান্দিয়া গ্রামের রান্দিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে (১০) বাড়িতে রেখে তার মা বাবা বাড়ির পাশে ইসলামী সভা শুনতে যান। শিশুটিকে বাড়িতে একা পেয়ে প্রতিবেশি ফয়েজ আলী শেখের ছেলে আজিজুল হক (৪০) শিশুটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। সভা শেষে শিশুটির মা বাবা বাড়িতে গেলে ঘটনাটি জানতে পান এবং শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে ভালুকা ৫০ শয্যা সরকারী হাসপাতাল ও পরে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।
অপরদিকে উপজেলার হবিরবাড়ি সিডষ্টোর বাজারে অজ্ঞাতনামা বাকপ্রতিবন্ধীকে (৩৫) বাজারের ঝাড়–দার উপজেলার মেহেরাবাড়ি তালতলা গ্রামের দুলাল বাঁশফুরের ছেলে সোহাগ বাঁশফুর ওরফে গৌতম (২১) ১৫ মার্চ সোমবার ভোররাতে জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে। পরে ধর্ষণের শিকার ওই প্রতিবন্ধী নারী ইশারায় ঘটনাটি স্থানীয়দের জানালে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাকপ্রতিবন্ধী ওই নারীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে মডেল থানার এসআই সাঈদারা রিটা বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত গৌতমকে গ্রেফতার করে শুক্রবার সকালে আদালতে প্রেরণ করে।
তাছাড়া উপজেলার মাহমুদপুর গ্রামে দুই সন্তানের জননীকে (২৮) জোড়পূর্বক ধর্ষণের অভিযোগে প্রতিবেশি মতিউর রহমানের ছেলে চাচাতো দেবর সাদিকুর রহমানের (৩০) বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার রাতে ওই নারী বাদি হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
ভালুকা মডেল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মেহেদী হাসান জানান, প্রতিবন্ধী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রতিবন্ধী ও ওই নারীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। শিশু ধর্ষণের ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন। মামলাটি প্রক্রিয়াধিন এবং আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।