শুক্রবার ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

বাস ও প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষ আগুনে পুড়ে মারা গেলেন ভেড়ামারার জনপ্রিয় চিকিৎসক আমিরুল ইসলাম ॥

আপডেটঃ ৬:১৬ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১২, ২০১৪

এলাকায় শোকের মাতন

আগুনে পুড়ে দগ্ধ হয়ে মারা গেছেন ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে’রজনপ্রিয় চিকিৎসক আমিরুল ইসলাম (৫২)। গতকাল সোমবার সকাল ১১টার দিকেভেড়ামারার ১২ মাইল নামক স্থানে বাস ও প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষের পরপ্রাইভেট কারে আগুন ধরে গেলে তিনি অগ্নিদগ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন। তিনিভেড়ামারার বামনপাড়া এলাকার মৃত ডাঃ আবুল হোসেন’র পুত্র এবং প্রতীক্ষা নাসিংহোমের মালিক। মৃত্যুকালীন সময়ে তিনি ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে’র স্বাস্থ ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাহিসেবে দায়িত্বপালন করছিলেন। এ ছাড়াও তিনি ভেড়ামারা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়পরিচালনা পর্ষদ’র নির্বাচিত অভিভাবক প্রতিনিধি। তার মৃত্যুতে শোকের মাতনচলছে ভেড়ামারায়। শোক ও সমাবেদনা জানিয়েছে ভেড়ামারা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়কর্তৃপক্ষ।
জানা গেছে, গতকাল সোমবার সকালে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে থেকে চিকিৎসক ডাঃ আমিরুল ইসলাম একটি প্রাইভেট কার (ঢাকা মেট্রগ- ১৭-৯৯৫০) নিয়ে কুষ্টিয়া যাচ্ছিলেন। এসময় তিনি ড্রাইভার কে পাশে বসিয়েনিজেই কারটি চালাচ্ছিলেন। প্রাইভেট কারটি ভেড়ামারা-কুষ্টিয়া মহসড়কের ১২মাইল নামক স্থানে পৌছালে অপর দিক থেকে আসা ঢাকাগামী ফাতেমা পরিবহন’র (ঢাকা-মেট্র-ব ১১-৬৯২৩) সাথে মুখোমুখি সংর্ঘষ হয়। ভয়াবহ সংঘর্ষে প্রাইভেটকারের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ঘটে প্রথমেই চিকিৎসকের কারটিতে আগুন ধরেযায়। দাউ দাউ করে জ্বলতে থাকে প্রাইভেট কারটি। আগুনে ঘটনাস্থলেই পুড়ে ছাইহয়ে যায় চিকিৎসক আমিরুল ইসলাম। এসময় পালিয়ে যায় পাশে থাকা ড্রাইভার এবং অপরএকজন ওষুধ কোম্পানীর প্রতিনিধি। পরে প্রাইভেট কারের সৃষ্ট আগুন থেকেফাতেমা পরিবহনের বাসটিতেও আগুন ধরে যায়। বাসথেকে নামতে গিয়ে নুরুজ্জামান, মুক্ত সহ কমপক্ষে ১২ জন যাত্রী আহত হয়। মুহুর্তেই পুড়ে ছাই হয়ে যায় গাড়িদুটি। পরে ভেড়ামারা ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এসময় প্রাইভেট কারের ভিতর থেকে উদ্ধার করা হয় চিকিৎসকের পুড়ে যাওয়া মৃত দেহ।আগুনে চিকিৎসকের শরিরের পুরো অংশই পুড়ে ছাই হয়ে যায়। দূর্ঘটনার কারনেকুষ্টিয়া-পাবনা-ভেড়ামারা মহাসড়কের যানবহনগুলো প্রায় ২ ঘন্টা আটকা পড়ে।দীর্ঘ যানজটে এসময় যাত্রীদের চরম দূর্ভোগ পোহাতে দেখা গেছে। ঘটনাস্থলপরিদর্শন করেন কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন এবং কুষ্টিয়ারপুলিশ সুপার মফিজ উদ্দীন আহম্মেদ।
বাস যাত্রী শৈলকুপা এলাকার নিজামশেখ’র পুত্র মুক্ত হোসেন জানিয়েছেন, তার পরিবারের ৫ জন নিয়ে ঢাকা যাচ্ছিলেনতারা। দূর্ঘটনা কবলিত স্থানে এসে বাসটি স্বজোরে ধাক্কা দেয় প্রাইভেটকারটিতে। এসময় আগুন ধরে যাই প্রাইভেট কারে। মুহুর্তেই পুড়ে ছাই হয়ে যায়চিকিৎসক আমিরুল ইসলাম। পরে বাসটিতেও আগুন ধরে যায়।
ভেড়ামারা থানারঅফিসার ইনচার্জ মামুন খাঁন জানিয়েছেন, দূর্ঘটনার পর প্রাইভেট করের গ্যাসসিলিন্ডার বিস্ফোরন ঘটে দুটি গাড়িতেই আগুন ধরে যায়। চিকিৎসকের শরিরের অংশবিশেষ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।
ভেড়ামারা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শোক ঃ
ভেড়ামারা মডেল উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ’র নির্বাচিত অভিভাবকপ্রতিনিধি চিকিৎসক আমিরুল ইসলাম’র মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমাবেদনা প্রকাশকরেছে ভেড়ামারা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়’র প্রধান শিক্ষক আব্দুল জব্বার সহবিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ’র সদস্য, শিক্ষক শিক্ষিকা কর্মচারী বৃন্দ।বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে শোক সন্তপ্তপরিবারের প্রতি গভীর সমাবেদনা জানিয়েছে।
ব্যাঞ্জনবর্ন ও দরদ ক্লিনিক ঃ
শোক ও সমাবেদনা জানিয়ে মরহুমের বেহেস্ত নছীব’র কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেভেড়ামারার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সম্পূরক জ্ঞানগৃহ ব্যাঞ্জনবর্ণ পরিবার ও দরদক্লিনিক কর্তৃপক্ষ।