রবিবার ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ ইং ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

চাঁদাবাজির টাকা দিয়ে কোটচাঁদপুর থানা আওয়ামী লীগের শোক দিবসের অনুষ্ঠান ॥ নেতাকর্মীরা দ্বিধাবিভক্ত !

আপডেটঃ ১:৩০ পূর্বাহ্ণ | আগস্ট ১৭, ২০১৬

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃসাব্বির হোসেন :
চাঁদাবাজি টাকা দিয়ে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর থানা আওয়ামী লীগের শোক দিবসের অনুষ্ঠান পালন করা হয়েছে।
এ কারনে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পৃথকভাবে অনুষ্ঠান পালন করেছে। শোক দিবস উপলক্ষে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর থানা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা গত কয়েকদিন ধরে বেপরোয়া চাঁদাবাজি করেছেন করেন বলে অভিযোগ উঠে।

যেখানে দলীয় প্রধানের নির্দেশ রয়েছে কোন রকম চাঁদাবাজি করে শোক দিবসের অনুষ্ঠান পালন করা যাবে না। সেখানে এমন ঘটনার কারনে কোটচাঁদপুর দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে বিভক্ত হয়ে অনুষ্ঠান পালনের ঘোষনা দেন। অনেকে ঘটনাটি ন্যক্কারজনক বলে অবহিত করেছেন। যারা এ কাজের সাথে জড়িত অবিলম্বে তদন্তপূর্বক সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়েছেন ।

জানা গেছে, ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সম্প্রতি ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শরিফুন্নেছা মিকি,সাধারন সম্পাদক শাহাজাহান আলী, সহ-সভাপতি বাবলুর রহমান, ফজলুল রহমান ও সাবেক থানা যুবলীগের সহ-সাধারন সম্পাদক সামাউল হক লাড্ডু সহ নেতাকর্মীরা অনুষ্ঠান প্রস্তুতি সভার আয়োজন করে।

এ সময় তারা অনুষ্ঠান পালনের জন্য একটি গ্রুপ তৈরি করেন। ওই গ্রুপের লোকজন উপজেলার বিভিন্ন ইটভাটা,ফুড গোডাউন,ক্লিনিক, ডায়াগনষ্টিক সেন্টার, আবাসিক হোটেল, রেস্টুরেণ্টসহ বড় বড় ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে জোরপূর্বক চাঁদাবাজি করেন।

এই চাঁদাবাজির কারনে কোটচাঁদপুর পৌর আওয়ামী লীগের আহবায়ক ফারজেল হোসেন মন্ডল, যুগ্ম আহবায়ক শহিদুজ্জামান সেলিম, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার তাজুল ইসলাম, থানা যুবলীগের আহবায়ক মনির হোসেন, আওয়ামী লীগ কর্মী সোহেল মোস্তাকসহ নেতৃবৃন্দ কোটচাঁদপুর মুক্তিযোদ্ধা অফিসের সামনে ১৫ আগষ্ট পালন করেন।

এ ব্যাপারে কোটচাঁদপুর থানার ওসি কবির হোসেন জানান, এখানো থানা আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপকে এক করে অনুষ্ঠান পালনের জন্য অনুরোধ করে ছিলাম। কিন্তু তারা পৃথকভাবে অনুষ্ঠান পালন করলো। তবে চাঁদাবাজির ঘটনাটি আমার জানা নেই।

এ ঘটনায় কোটচাঁদপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শরিফুন্নেছা মিকির সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,আমরা থানা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠান পালন করার জন্য সকলকে দাওয়াত দিয়েছি। কোন চাঁদাবাজির ঘটনা ঘটেনি।

ঘটনাটি নিয়ে ঝিনাইদহ-৩(কোটচাঁদপুর-মহেশপুর) আসনের এমপির সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, চাঁদবাজির ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। আমি দু’গ্রুপকে এক করার চেষ্টা করছি। কিন্তু   তারা পৃথকভাবে অনুষ্ঠান পালন করেছে।