বুধবার ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ ইং ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

নায়িকা হওয়ায় নিজ বাড়ী থেকে বিতাড়িত হয়েছি – জলি

আপডেটঃ ১২:১৭ অপরাহ্ণ | আগস্ট ১৮, ২০১৬

যৌথ আয়োজনের ছবি ‘অঙ্গার’ দিয়ে চলতি বছরই বড় পর্দায় জলির যাত্রা শুরু। চলতি সপ্তাহে মুক্তি পেল তার ‘নিয়তি’ ছবিটি। এ ছবি ও অন্যান্য প্রসঙ্গে আজ তার ইন্টারভিউ—

আপনার দ্বিতীয় ছবি ‘নিয়তি’ মুক্তি পেল, কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

এক কথায় প্রত্যাশার চেয়ে বেশি। সিনেমা হল, ফেসবুক, সরাসরি— নানাভাবে দর্শক ছবিটি ও এতে আমার কাজের প্রশংসা করছে। খুব ভালো লাগছে। মনে হচ্ছে দর্শকের মন জয়ে ৭০ ভাগ সফল হয়েছি। এটি আমার দ্বিতীয় ছবি। মানে যাত্রা মাত্র শুরু হলো। দর্শকের ভালোবাসায় সফলতার শিখরে উঠতে চাই। 

এত গেল দর্শকের সাড়ার কথা, নির্মাতাদের কাছ থেকে আমন্ত্রণ কেমন পাচ্ছেন? 

অনেক প্রস্তাব আসছে। তবে আমি এখন ‘নিয়তি’ নিয়ে ফুল ফোকাসে আছি। তাই সবকিছু বুঝে পুরো রেজাল্ট হাতে পেয়ে তারপরই অন্য ছবির কাজ শুরু করতে চাই। এমনভাবে এগোতে চাই যাতে মাঝপথে হোঁচট খেতে না হয়। তাই হিসাব করেই চলছি। হুট করে কোনো কাজ হাতে নিতে চাই না।

দুটি ছবিতে রোমান্টিক চরিত্রে কাজ করেছেন, এমন চরিত্রেই আবদ্ধ থাকবেন, নাকি নতুন পথে হাঁটবেন? –

অবশ্যই নতুন পথে হাঁটব, দর্শকের সামনে নতুনভাবে নিজেকে তুলে ধরব। দুটি ছবিতে রোমান্টিক চরিত্রে অভিনয় করলাম। এবার অ্যাকশনধর্মী চরিত্র চাই। তারপর আরও যত রকম চরিত্র আছে সবগুলোতে কাজ করে অভিনয়ের ক্ষেত্রে ভ্যারিয়েশন আনার চেষ্টা করব।

দুটো ছবিই জাজ এবং যৌথ প্রযোজনার— জাজের ঘরেই নিজেকে বন্দী রাখবেন?

আসলে জাজ এবং যৌথ প্রযোজনার বাইরে আমার ধারণা কম। জাজ আমাকে চলচ্চিত্রে এনেছে। বড় পর্দায় দাঁড়াতে শিখিয়েছে। তাই জাজের কাজে অবশ্যই প্রাধান্য থাকবে আমার। আর যৌথ আয়োজনের কাজ করলেও দুটি ছবিতেই আমার চরিত্র গড়িয়েছে নিজ দেশের পোশাক, সংলাপ, কৃষ্টি আর ঐতিহ্যকে ঘিরে। তাই এমন ছবিতে বাংলাদেশের সংস্কৃতি ঘেরা চরিত্রেই কাজ করতে চাই।

চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে এসে মেয়েরা প্রতিকূল অবস্থায় পড়ে বলে অভিযোগ আছে। এমন অভিজ্ঞতার কবলে পড়তে হয়েছে?

না, মোটেও না। আমি খুব লাকি। কারণ কাজ করতে এসে সবার সহযোগিতা পেয়েছি। কোনো প্রতিকূল অবস্থায় পড়তে হয়নি। তবে নায়িকা হতে গিয়ে ফ্যামিলির সঙ্গে অনেক ফাইট করতে হয়েছে। আমাকে বাবা অনেক বকাঝকা করেছেন। নায়িকা হয়েছি বলে বাসা থেকে আমাকে বের করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু চলচ্চিত্র জগতের সঙ্গে কোনো ফাইট করতে হয়নি। এখন অবশ্য বাসায় সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে গেছে। সবার মন জুগিয়ে কাজ করতে পারছি।

চলচ্চিত্রে এসে অল্প দিনেই অনেকে হারিয়ে যায়। নিজেকে টিকিয়ে রাখতে পারবেন বলে মনে হয়?

টিকে থাকার জন্য যত ফাইট আর হার্ডওয়ার্ক আছে সবই করে যাব। আমার বিশ্বাস আমি টিকে যাব। কারণ শুরুতেই দর্শক আমাকে গ্রহণ করেছে। মানে ‘মর্নিং শোজ দ্য ডে’। যাত্রাটা যখন শুভ হয়েছে আগামীটা তাই আলোকিত হবেই। তবে দর্শক যেদিন থেকে আমাকে অপছন্দ করতে শুরু করবে সেদিন থেকেই এই অঙ্গন থেকে আমি দূরে সরতে থাকব। দর্শকের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর করে থাকার কোনো ইচ্ছাই আমার নেই।