রবিবার ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ ইং ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

ছাতকে শিক্ষার্থী পেটানোয় শিক্ষক বরখাস্ত

আপডেটঃ ১২:৩৮ পূর্বাহ্ণ | আগস্ট ২০, ২০১৬

ছাতক প্রতিনিধিঃচান মিয়া,  সুনামগঞ্জ:।
ছাতকের গোবিন্দগঞ্জ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আতিকুল ইসলামকে চাকুরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ১৭আগষ্ট মধ্যযূগীয় কায়দায় শিক্ষার্থী পেটানোর ঘটনায় সুনামগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ডি ডি তাহমিনা বেগমের এক আদেশে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। গত ১৪আগষ্ট দুপুর সাড়ে ১২টায় গোবিন্দগঞ্জ মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আতিকুল ইসলাম ক্লাস রুম তালাবদ্ধ করে পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের উপর বর্বরোচিত হামলা চালায়। এসময় লাঠির আঘাতে ২১জন শিক্ষার্থী গুরুরতর আহত হয়। ঘটনার সময় আতিকুল ইসলাম অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নিয়ে খোশ গল্পে মত্ত থাাল ছাত্ররা রুম থেকে বের হয়ে খেলা করতে থাকে। এসময় রুম থেকে বের হবার অপরাধে তাদেরকে লাঠি পেটা করা হয়। বিষয়টি পত্র-পত্রিকায় ব্যাপক প্রচার ও তদন্তে বিষয়টি সত্যতা উদঘাটিত হওয়ায় অবশেষে কর্তৃপক্ষ তাকে বরখাস্ত করেন। পরে সুনামগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের নির্দেশে আহত ছাত্রছাত্রীদের দেয়া অভিযোগ ১৫আগষ্ট সরেজমিন তদন্ত করেন ছাতক উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মানিক চন্দ্র দাস। এসময় অভিবাবকরা অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে তথ্য প্রমানসহ শিক্ষার্থী পেটানোর গুরুতর অভিযোগ করেন। শিক্ষকের স্ত্রী পেটানোর কথাও তারা তদন্ত টিমের কাছে বলতে ভূলেননি। এসময় এলাকাবাসী তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। এব্যাপারে শিক্ষা অফিসার মানিক চন্দ্র দাস জানান, ঘটনার সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা জেলা প্রশাসক ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ১৬আগষ্ট প্রতিবেদন প্রেরণ করা হয়। এর প্রেক্ষিতে তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। ১৭আগষ্ট চাকুরি থেকে সাময়িক বরখাস্তের একটি চিঠি শিক্ষক আতিক গ্রহন করেছেন বলে বলে জানা গেছে।