বৃহস্পতিবার ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

লালমনিরহাটের আদিতমারীতে রাস্তা পাকা করণের কাজ বন্ধ করে দিয়েছে এলাকাবাসী

আপডেটঃ ২:৪৩ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ২৭, ২০১৬

এস.এম সহিদুল ইসলাম লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ জেলার আদিতমারী উপজেলার বামনের বাসা হইতে ১ কিলোমিটার রাস্তা পাকা করণে নিম্নমানের খোয়া দিয়ে কাজ করার অভিযোগে ওই কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। ফলে ৫ দিন যাবত বন্ধ রয়েছে নির্মাণ কাজ। নিম্নমানের খোয়া না সরানো পর্যন্ত রাস্তার কাজ বন্ধ থাকবে বলে এলাকাবাসী হুশিয়ারী দিলেও গুরুত্ব দিচ্ছেন না সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার ও আদিতমারী উপজেলা প্রকৌশলী।
উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, কমলাবাড়ি ইউনিয়নের বামনের বাসা চৌপুথি হয়ে দক্ষিণে এক কিলোমিটার রাস্তা পাকা করণের জন্য স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তর লালমনিরহাট থেকে প্রায় ৫৮ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। এ কাজের তদারকি করবেন উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর। কাজটি আলমগীর হোসেনের নামে কাগজে কলমে থাকলেও তার নামে কাজ করছেন স্থানীয় ঠিকাদার সহিদার রহমান। ঠিকাদার উপজেলা প্রকৌশলী শামীন সারার ফুয়াদের সাথে যোগসাজসে নিম্নমানের খোয়া ব্যবহার করে রাস্তার কাজ করছেন বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন। তারা নিম্নমানের খোয়া রাস্তায় ব্যবহার করার বিষয়টি টের পেয়ে গত শুক্রবার কাজ বন্ধ করে দেয়। ফলে বিপাকে পড়েন ঠিকাদার ও উপজেলা প্রকৌশলী। এলাকাবাসীর চাপে উপজেলা প্রকৌশলী অধিদপ্তরের লোকজনও কাজ বন্ধ করে দেয়। স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, নিম্নমানের খোয়া রাস্তা থেকে অপসারণ করে প্রথম শ্রেনীর খোয়া দিয়ে কাজ না করা পর্যন্ত কাজ বন্ধ থাকবে।
সরেজমিনে ২৫ অক্টোবর সকালে ঘটনাস্থল গিয়ে দেখা গেছে, রাস্তার কিছু অংশে নিম্নমানের খোয়া বিছিয়ে বালু দিয়ে ঢেকে দেয়া হয়েছে। আর এ সময়ে কাজ বন্ধ করে দেয় স্থানীয়রা। চন্দনপাঠ এলাকার স্থানীয়রা জানান,রাস্তায় নিম্নমানের খোয়া ও রাবিস ব্যবহার করায় আমরা রাস্তার কাজ বন্ধ করে দিয়েছি , এসব নিম্নমানের সামগ্রী রাস্তা থেকে না সরানো পর্যন্ত কাজ বন্ধ থাকবে। স্থানীয় ঠিকাদার সহিদার রহমান অভিযোগ অস্বীকার করেন উল্টো স্থানীয় আউয়াল নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, তার বাড়ি যাওয়ার দেড়শ ফিট রাস্তা করে না দেয়ায় তাদের লোকজন কাজ বন্ধ করে দিয়েছে।
আদিতমারী উপজেলা প্রকৌশলী শামীন সারার ফুয়াদ জানান, স্থানীয় লোকজনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সাময়িকভাবে কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ঠিকাদারের সাথে যোগসাজসের বিষয়ে কোন কথা বলতে রাজি হননি তিনি।
স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তর লালমনিরহাটের নির্বাহী প্রকৌশলী আল-আমিন খান বলেন,স্থানীয় লোকজন রাস্তার কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন,এমন অভিযোগ পাওয়ার পর একটি তদন্ত টিম গঠন করে দেয়া হয়েছে।