বৃহস্পতিবার ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে ইবি থানাধীন ঝাউদিয়া এলাকার চাঞ্চল্যকর “ট্রিপল মার্ডার” মামলার এজাহারনামীয় ০২ জন আসামী অস্ত্র, গোলাবারুদ ও মাদকসহ আটক।

আপডেটঃ ৫:১৫ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ০১, ২০১৬

চ্যানেল সেভেন বিডি,র‌্যাব কুষ্টিয়া: র‌্যাব তার প্রতিষ্ঠা লগ্ন হতেই খুন, অপহরণ, ডাকাতি, ছিনতাই, চাঁদাবাজী ও চোরাচালানসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যক্রম বন্ধ করাসহ দুঃ®কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে অপরাধ নির্মূলে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে আসছে এবং এই ব্যাপারে র‌্যাব-১২ এর আওতাধীন এলাকাগুলিতে ব্যাপকভাবে সফলতা অর্জন করেছে। গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধিসহ সার্বক্ষণিক অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব ইতিমধ্যে জনগনের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও র‌্যাব তার নিজস্ব এলাকার আভিযানিক কার্যক্রম জোরদার করার মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের অপরাধ কার্যক্রম রোধে ব্যাপক সফলতা অর্জন করেছে।

আপনারা জেনে থাকবেন গত ২৪/০৯/২০১৬ ইং তারিখ ইবি থানাধীন ঝাউদিয়া ইউনিয়নের মাজপাড়া এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ ঘটে। উক্ত সংঘর্ষের ঘটনায় ০৮/১০ জন ব্যক্তিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে, গুলি করে গুরুতর জখম করা হয়। এতে ঘটনাস্থলেই শাহাজ উদ্দীন (৫৯) মৃত্যুবরণ করেন। এবং পরবর্তীতে ইমন আলী (৩৪) কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। এই ঘটনায় গুরুতর আহত অন্য্যন্য ব্যক্তিদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আকালি (৫৫) মৃত্যুবরণ করেন। এ হত্যাকান্ড সংক্রান্তে নিহতের স্বজনরা বাদী হয়ে ইবি থানায় মামলা নং-১৩ তাং-২৫/০৯/১৬ ইং ধারা ১৪৩/৩২৬/৩৮৫/৩০২/১১৪/৩৪ দঃবিঃ রুজু করে। এই নৃশংস হত্যাকান্ড এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যতা সৃষ্টি করে। ঘটনার পর হতেই র‌্যাব উক্ত ঘটনার সাথে জড়িত আসামীদের গ্রেফতারে ব্যাপক অভিযান শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৩১/১০/২০১৬ ইং তারিখ রাত আনুমানিক ২২.৪০ ঘটিকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় যে, চাঞ্চল্যকর ট্রিপল মার্ডার মামলার এজাহার নামীয় পলাতক আসামীরা কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী থানাধীন চকরঘুয়া (আলাউদ্দিন নগর)এর কুষ্টিয়া রাজবাড়ী মহাসড়ক এলাকায় অবস্থান করছে এবং সেখান থেকে বাসযোগে ঢাকা পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এ সংবাদ প্রাপ্তির সাথে সাথেই র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল উক্ত পলাতক আসামীদের গ্রেফতারে দ্রুত অভিযান পরিচালনা করে।

048এসময় ঘটনাস্থল হতে র‌্যাব ১। মোঃ আব্দুল মজিদ (৪৮), পিতা-তমসের মন্ডল, ২। মোঃ মেহেদী হাসান (২৮), পিতা-মুন্সি আব্দুল আলিম, উভয় সাং-মাজপাড়া, থানা-ইবি, জেলা-কুষ্টিয়াদ্বয়কে গ্রেফতার করে। তারা উক্ত হত্যা মামলার এজাহার নামীয় ২ এবং ৩ নং আসামী। তাৎক্ষণিক আসামীদের নিকট হতে ০২ টি বিদেশী পিস্তল, ০২ টি পিস্তলের ম্যাগাজিন, ০৫ রাউন্ড পিস্তলের গুলি ও ১০ গ্রাম হিরোইন উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ইবি থানার ঝাউদিয়া এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ঘটা সংঘর্ষের সহিত সরাসরি জড়িত ছিল বলে জানায়। এছাড়াও গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ আব্দুল মজিদ(৪৮) ও মোঃ মেহেদী হাসান (২৮) এলাকায় খুন, অপহরণ, চাঁদাবাজী, মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত থাকার বিষয়ে ব্যাপক তথ্যাদি পাওয়া যায়। এছাড়াও কুষ্টিয়া সহ আশেপাশের বিভিন্ন জেলায় তাদের নামে একাধিক মামলা আছে বলে জানা যায়। আসামীদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদকদ্রব্য আইনে পৃথক পৃথক মামলা দায়েরপূর্বক কুমারখালী থানায় হস্তান্তর করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে।

র‌্যাবের এ ধরনের সন্ত্রাস বিরোধী আভিযানিক কার্যক্রম চলমান থাকবে এবং ভবিষ্যতে আরো জোরদার করা হবে। আইন শৃংখলা বাহিনীর এধরনের তৎপরতা বাংলাদেশকে একটি সন্ত্রাসমুক্ত দেশ হিসাবে গড়ে তুলতে পারবে বলে আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।