রবিবার ২৪শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং ১০ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

অক্টোবরে ৪৪৬ নারী নির্যাতনের শিকার : মহিলা পরিষদের প্রতিবেদন!

আপডেটঃ ৪:৫৭ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ০৪, ২০১৬

চ্যানেল সেভেন বিডি: বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ অনুসারে, ২০১৬ সালের অক্টোবর মাসে মোট ৪৪৬ জন নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে বলে এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।
 
পরিষদের লিগ্যাল এইড উপ-পরিষদে সংরক্ষিত ১৪টি দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু প্রতিবেদন প্রকাশ করেন।
 
প্রতিবেদন মতে, গত সেপ্টেম্বর মাসে ৯১টি ধর্ষণের ঘটনাসহ মোট ৩৭৪টি নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। অর্থাত্ এক মাসে ধর্ষণের ঘটনা বেড়েছে ২৪টি, মোট নির্যাতনের ঘটনা বেড়েছে ৭২টি। মহিলা পরিষদ মনে করে প্রকৃত ঘটনা আরো অনেক বেশি।
 
অক্টোবর মাসে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে মোট ১১৫টি। তন্মধ্যে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে ২৩ জন, ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে ৪ জন নারীকে। এছাড়া ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে ২৪ জন নারী ও কন্যাশিশুকে। শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছে ১৬ জন নারী।  যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে ৫ জন নারী। এসিডদগ্ধ হয়েছে ২ জন। উক্ত সময় অগ্নিদগ্ধের ঘটনা ঘটেছে ৭টি। তন্মধ্যে অগ্নিদগ্ধের কারণে মৃত্যু হয়েছে ২ জন নারীর। অপহরণের ঘটনা ঘটেছে মোট ৮টি। গত অক্টোবর মাসে বিভিন্ন কারণে ৬৪ জন নারী ও কন্যাশিশুকে হত্যা করা হয়েছে এবং আরও ১৬ জনকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। ঐ সময় ৬ জন গৃহপরিচারিকাকে নির্যাতন করা হয়েছে তন্মধ্যে হত্যা করা হয়েছে ২ জনকে।
 
যৌতুকের জন্য হত্যা ও নির্যাতনের শিকার হয়েছে ৩২ জন। তন্মধ্যে হত্যা করা হয়েছে ১১ জনকে। উত্ত্যক্ত করা হয়েছে ৩২ জনকে। বিভিন্ন কারণে ১৫ জন আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছে। আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন ২ জন। একই সময় ১৯ জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বাল্য বিয়ের শিকার হয়েছে ১৩ জন কিশোরী। শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে ৩৮ জনকে। বেআইনি ফতোয়ার ঘটনা ঘটেছে ৬টি। পুলিশি নির্যাতনের শিকার হয়েছে তিন জন নারী ও কন্যাশিশু। এছাড়া ১৫টি অন্যান্য নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।