| |

Ad

মেলা প্রাঙ্গণে বইয়ের টানে

আপডেটঃ ৯:০৯ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৮

স্টাফ রিপোর্টার: কথায় আছে- সময় ও স্রোত কারও জন্য অপেক্ষা করে না। তেমনি অমর একুশে গ্রন্থমেলা শুরু হতে না হতেই ৭ম দিন পার করলো। এদিন অনেকটা ছিমছাম পরিবেশে পাঠক, লেখক ও দর্শনার্থীদের বিচরণ তেমন লক্ষণীয় ছিল না মেলায়। তবে মেলায় তুরুণ বই প্রেমীদের আনাগোনা লক্ষ্য করা গেছে। বিভিন্ন স্টলে স্টলে ঘুরে নতুন বইয়ের ঘ্রাণ নিচ্ছেন তারা। অনেকে আবার দু-চারটি কিনেছেনও বটে। আবার অনেকে বইয়ের ক্যাটালগ নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। মেলায় ঘুরতে আসা এমনি কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা গেল যে, তারা মূলত মেলায় এসেছেন বন্ধু-বান্ধবের সাথে সময় কাটাতে,বইও দেখছেন আবার শুধু ক্যাটালগ নিয়েই মেলা প্রাঙ্গণ ছেড়েছেন অনেকে।
মেলায় বই প্রেমী কিছু তরুণদেরও সাথে কথা হয়। এমনই এক জুটি হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের দুই মেধাবী শিক্ষার্থী খায়রুল ইসলাম ও শারমিন আক্তার। তারা জানান, নতুন নতুন বইয়ের টানেই মুলত মেলায় আসা। বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস শেষে বন্ধু-বান্ধবীর সাথে মেলায় ঢুঁ মারা যেন নিত্য-নৈমিত্তিক কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমরা বাংলা সাহিত্যের শিক্ষার্থী। তাই বইয়ের টান যেন হৃদয়ে সারক্ষণ বাজে। বইয়ের টানেই মেলায় ছুটে আসি। মেলায় এসে যখন নিজের শিক্ষক, বন্ধুদের লেখা বই দেখি তখন মনটা আনন্দে ভরে যায়।
মেলায় ঘুরতে আসা শারমিন বলেন, আমি উপন্যাস পড়তে ভালোবাসি। তাই বন্ধুদের সাথে মেলায় ঘোরা-ফেরার পর পছন্দের উপন্যাসটি কিনে বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে ফিরে যাবো।
মেলায় বই কেমন বিক্রি হচ্ছে- জানতে চাইলাম অনুপম প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী রাজু আহমেদের কাছে। তিনি বলেন, পাঠবরা আসছেন, বই দেখছেন, বিক্রিও হচ্ছে মোটামুটি। তবে আমাদের স্টল থেকে জহির রায়হান ও হুমায়ূন আহমেদের বইগুলো বেশি বিক্রি হচ্ছে বলে জানান তিনি।অšে¦ষণা প্রকাশনীর উত্তম বিশ্বাস বলেন, আগের দিনের তুলনায় বিক্রি একটু বেড়েছে। উপন্যাসের বই আমাদের স্টল থেকে বেশি বিক্রি হচ্ছে। বিশেষ করে ঢাকা বিম্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষনা বিভাগের শিক্ষক খায়রুল ইসলামের লেখা ‘পরী’ উপন্যাসটি বেশি বিক্রি হচ্ছে বলে জানান তিনি। গতকাল বুধবার ছিল অমর একুশে গ্রন্থমেলার ৭ম দিন। এদিন মেলার দুই প্রাঙ্গণে ঘুরে দেআ যায়, নানা বয়সী মানুষের ভীড় নেই বললেই চলে। তবে বই বিক্রি মোটামুটি হয়েছে বলে বলে জানান প্রকাশক ও বিক্রয়কর্মীরা।
মূল আয়োজন : গতকাল বুধবার ছিল অমর একুশে গ্রন্থমেলার সপ্তম দিন। এদিন মেলা চলে বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত। বিকেল ৪টা গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় কবি আবদুল গফ্ফার দত্ত চৌধুরী শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন শুভেন্দু ইমাম। আলোচনায় অংশ নেন আলী মোস্তাফা চৌধুরী, জফির সেতু ও মোস্তাক আহমাদ দীন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ভীষ্মদেব চৌধুরী। সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।