শুক্রবার ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ইং ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

সৌদিতে ইফতারির নামে অপচয় কোটি টাকা!‏

আপডেটঃ ৪:২৮ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ০৭, ২০১৪

প্রিয় নবী হযরত মোহাম্মদ (সা:)এর জন্মস্থান তথা সৌদি আরবে রমজান মাসে ইফতারিতে অপচয় করা হচ্ছে কয়েক কোটি টাকা। অনুসন্ধানে দেখা গেছে, পবিত্র রমজান মাসে ৪০ লাখ মানুষের জন্য যে খাদ্য তৈরি করা হয় তার ৩০ শতাংশই না খেয়ে ফেলে দেয় হয়।

এভাবে অপচয়ে ব্যয় হয় ৩ লাখ ৩২ হাজার ডলার সমপরিমাণের অর্থ। যেটা বাংলাদেশি টাকার ২ কােটির চেয়েও বেশি।

জানা যায়, প্রতিবছর সংযম এবং আত্মশুদ্ধির পবিত্র মাস রমজানে সৌদি আরবে খাদ্য অপচয়ের মাত্রা আশঙ্কাজনকভাবে অনেক বেড়ে যায়।

পবিত্র মক্কা শরীফের নগর পরিষদ বলেছে, তাদের পক্ষে ক্রমবর্ধমান খাদ্য অপচয় সামাল দেয়া সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছে। এ পরিষদের কর্মকর্তা ওসামা আল-জাইতুনি বলেছেন, রমজানের প্রথম তিন দিনে নগরীর পরিচ্ছন্ন কর্মীদের পাঁচ হাজার টন বর্জ্য সরাতে হয়েছে। তবে ২৮ হাজার মৃত ভেড়ার দেহাবশেষ এ হিসাবের মধ্যে ধরা হয়নি বলেও জানান তিনি।

এছাড়া পবিত্র কাবাঘরের আশেপাশে ৪৫টি বর্জ্য সংকোচন যন্ত্র বসানো হয়েছে এবং বন্ধের দিনগুলোতে ময়লা অপসারণে বাড়তি আট হাজার কর্মীবাহিনী নিয়োগ করতে হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন এ কর্মকর্তা।

বিশেষজ্ঞরা এ জন্য সৌদির জনগণের মানসিকতাকে দায়ী করছেন। তারা বলেন, প্রয়োজনের চেয়ে অনেক বেশি খাবার-দাবার কেনা হয়। তাজা খাবার গ্রহণের মানসিকতা থেকে প্রতিদিন খাদ্য প্রস্তুত করা হয় কিন্তু বেঁচে যাওয়া খাবারকে ভোগে লাগানোর কথা ভাবা হয় না।

অবশ্য, খাদ্য অপচয় কেবল সৌদি আরবে হয় না, বরং এ প্রবণতা সমগ্র মধ্যপ্রাচ্যেই দেখা যায়। কাতারে পবিত্র রমজান মাসে যে খাবার প্রস্তুত করা হয় তার এক চতুর্থাংশই ফেলে দেয়া হয়। খাবার অপচয় বন্ধের লক্ষ্যে দেশটিতে অনেক পন্থা গ্রহণেরও সুপারিশ করেছে আবুধাবির খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ।