| |

Ad

সর্বশেষঃ

উত্তরায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে প্রাইভেটকার চালক নিহত

আপডেটঃ ৪:৫৮ অপরাহ্ণ | মে ২০, ২০১৮

এস,এম,মনির হোসেন জীবন ॥ জামিলা আক্তার পারুল : পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাজধানীর উত্তরা-১০ নম্বর সেক্টরে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে এক প্রাইভেটকার চালক নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম মো: রুপচান আলী (৩০)। তার পিতার নাম মো: রমজান আলী। ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছা থানার জয়রামপুর গ্রামে তার বাড়ি। বর্তমানে সে উত্তরা-১০ নম্বর সেক্টর ফুলবাড়িয়া-১ নম্বর রোডের নুর ইসলামের বাড়ির ভাড়াটিয়া  শনিবার দিনগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টর স্ল্র্যইচ গেইট এলাকায় এ খুনের ঘটনা ঘটে।    উত্তরা পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: আলী হোসেন খান আজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
উত্তরা পশ্চিম থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. সাদেক নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে জানান, শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টর স্ল্যইচগেইট এলাকায় রাস্তার পাশে একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় এলাকাবাসিরা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মো: রুপচান আলী (৩০) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্বার করে। নিহতের শরীরের পাঁজর, বুকের মাঝখানে, পেটে ও বাম হাতের আঙ্গুলে কাটা জখমের দাগ রয়েছে।
নিহতের স্ত্রী শিরিনা বেগম জানান, পুলিশ তার স্বামী রুপ চানের মোবাইল থেকে তাদের ফোন করে জানায় যে, দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে রূপ চান মারা গেছেন। খবর পেয়ে স্ল্যইচ গেট এলাকায় গিয়ে তার স্বামীর মরদেহ সনাক্ত করেন। নিহত রূপচান উত্তরা-১৩ নম্বর সেক্টরের একটি ব্যক্তি মালিকাধীন গাড়ি চালাতেন। পূর্বশত্রুতার জের ধরে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে নিহতের স্বজনরা অভিযোগ করেছেন।

পুলিশ ও নিহতের পরিবারের লোকজন জানান, গত দুই বছর আগে একই এলাকার হাবিব নামে এক মোটর মেকানিকের কাছে গাড়ির ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য ১২ হাজার টাকা দেন প্রাইভেটকার চালক মো: রুপ চান। হাবিব লাইসেন্স করে দিতে পারেনি এবং টাকাও ফেরত দেয়নি। এ নিয়ে হাবিব ও রূপ চানের মধ্যে দীর্ঘ দিন ধরে ঝগড়া মনোমালিণ্য চলে আসছিল। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হাবিব ও তার সহযোগীরা রূপচানকে ডেকে নিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে। খবর পেয়ে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এঘটনায় উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি।