| |

Ad

সর্বশেষঃ

সিলেটের নগরির ঝর্ণারপাড়ে হাত বাড়ালেই মাদক — প্রশাসন নীরব %

আপডেটঃ ৩:১৭ অপরাহ্ণ | মে ২৮, ২০১৮

স্টাফ রিপোর্টার:সিলেট::সিলেট নগরির ১৮নং ওয়ার্ডের অন্তর্ভুক্ত ঝর্ণারপার এলাকার ৩নং গলির ভিতরে, লায়েক(৩৯) নামের স্থানীয় ব্যাক্তির দ্বারা দীর্ঘদিন ধরে চলছে মাদকের রমরমা বাণিজ্য।সরজমিনে ঐ এলাকায় অনুসন্ধান গিয়ে দেখা মেলেনি লায়েক নামের মাদক ব্যবসায়ীর- স্থানীয়রা .   চ্যানেল সেভেন বিডি  কে  জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ ঐ এলাকায় লায়েক সহ পার্শ্ববর্তী এলাকার সন্ত্রাসীচক্র মিলে গড়ে তোলেছেন মাদকের বেপরোয়া  বাণিজ্য।দিনের সাথে তাল মিলিয়ে মাদকের রুপ নিয়েছে ভয়ানক পরিস্থিতিতে।মাদকসেবন কারীরা এলাকার লায়েকের কাছে হাত বাড়ালেই পাচ্ছে ইয়াবা আর ফেনসিডিল।সাপ্তাহে ২/৩দিন পর পর শাহী -ঈদগাহ থেকে সি এন জি ও অটারিক্সা যোগে মাদক আসে লায়েকের কাছে।
মাদকের বাণিজ্য বেপরোয়া হওয়ার  কারণে এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা এ ব্যাপারে শোক প্রকাশ করেছেন।

স্থানীয়দের কাছে লায়েকের বেপরোয়া মাদক বাণিজ্যর বিষয়ে পুলিশের অভিযান সম্পর্কে কথা বললে উত্তরে তারা জানান,মাঝেমধ্যে পুলিশের অভিযান রয়েছে আমাদের এলাকাতে।গত ৪/৫ মাস পূর্বে একদল পুলিশ লায়েক’কে হাতেনাতে ধরে নিয়ে যায় কতোয়ালি থানায়।আবার পরদিন সকালে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

স্থানীয়দের মতে,ক্ষমাশীলরা জড়িত রয়েছেন বলে লায়েকের বেপরোয়া মাদক বাণিজ্যর বিরুদ্বে প্রতিবাদ করতে পাড়ছেন না তারা।

সচেতন মহলের অভিযোগ, দীর্ঘদিন যাবৎ ঝর্ণার পাড়ে চলছে মাদকের বেপরোয়া বাণিজ্য।পার্শ্ববর্তী এলাকার সন্ত্রাসীচক্রের মাধ্যমে বিদ্যুৎ গতিতে বৃদ্ধি পাঁচ্ছে মাদকের বাণিজ্য।অভিযোগ রয়েছে সবারই ভেতরে কিন্তু মূখ খোলছেন না ক্ষমতাবান অসাধু চক্রের কারণে।

এলাকার স্থানীয় ব্যাক্তি আরিফ আহমেদের সাথে কথা বললে তিনি জানান,দীর্ঘদিন ধরে লায়েক ঝর্ণাপার এলাকায় বেপরোয়া ভাবে মাদকের বাণিজ্য গড়ে তোলেছেন।দিনে দিনে অনেক মাদকসেবন কারীরাও লায়েকের সাথে মাদক বানিজ্য যুক্ত হচ্ছেন।বর্তমানে এলাকাতে লায়েক,পারভেজ, সহ কয়েকজন মিলে প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি করেন।তিনি আরও বলেন, লায়েক প্রতিদিন ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সা দিয়ে মাদক বিক্রি করেন।

সুত্রধরে জানা যায়,শাহী-ঈদগার স্থানীয় একটি মাদকচক্র জকিগঞ্জ ও কানাইঘাট থেকে মাদকের বড় বড় চালান নিয়ে আসে।অতঃপর  এই মাদকচক্র  নগরির বেশ কয়েকটি এলাকায় তাদের সহযোগীদের মাধ্যমে এই মাদক বিক্রি করে।

এলাকার ঝর্ণা তরুণ সংঘ নামের ক্লাবের সভাপতি, সাজুওয়ান আহমেদের সাথে এ বিষয়ে কথা বললে তিনি জানান দীর্ঘ দিন ধরে এলাকা মাদকের রমরমা বাণিজ্য চলছে।এ ধরণের অপকর্ম এলাকায় হচ্ছে এটা আমাদের জন্য লজ্জাজনক। এর বিরুদ্ধে অতি আইনি পদক্ষেপ নেওয়া জরুরী।

নগরির ঝর্ণার পাড় এলাকার বেপরোয়া মাদক বাণিজ্য নিয়ে সোবহানীঘাট ফাঁড়ির ইনচার্য কমর উদ্দিনের সাথে মটো ফোনে কল দিয়ে যোগাযোগ করা সম্বব হয় নি।