| |

Ad

সর্বশেষঃ

একটি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি, তিনটি ককটেল এবং ১ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার রাজধানীর দক্ষিণখানের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী খুকু সুমন কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ॥ ২ পুলিশ আহত

আপডেটঃ ১২:১১ অপরাহ্ণ | মে ২৯, ২০১৮

এস,এম,মনির হোসেন জীবন ॥ জামিলা আক্তার পারুল : রাজধানীর দক্ষিণখানে পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী সুমন ওরফে খুকু সুমন (৩১) দক্ষিণখানের আসিয়ান সিটি বালুর মাঠ এলাকায় পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় ২ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের টঙ্গীতে শহীদ আহসান উল্লাহ ২৫০ শয্যা জেনারেল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা করা হয়েছে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি, তিনটি ককটেল এবং এক হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।
সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে দক্ষিণখানের আসিয়ান সিটি এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।
দক্ষিণখান থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তপন চন্দ্র সাহা আজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
ওসি জানান, সোমবার দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, দক্ষিনখানের আসিয়ান সিটি এলাকায় মাদকের একটি বড় চালান আসছে এবং মাদক ব্যবসায়ী ও পাচারকারীরা জড়ো হয়েছে। খবর পেয়ে দক্ষিণখান থানা পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ী ও পাচারকারীরা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় ও গুলিবর্ষন করে। আতœরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এসময় উভয়ের মধ্যে গোলাগুলি হয়। পরে ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে সুমন ওরফে খুকু সুমনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। উভয় পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির সময় কথিত বন্ধুকযুদ্বে ঘটনাস্থলেই নিহত হন সুমন। এঘটনায় আহত ২ পুলিশ সদস্য সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আল আমিন ও কনস্টেবল সাখাওয়াতকে টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ ২৫০ শয্যা জেনারেল চিকিৎসা করা হয়েছে।
(ওসি) তপন চন্দ্র সাহা আজ আরো জানান, নিহত খুকু সুমন রাজধানীর দক্ষিণখান থানা এলাকার শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে পাঁচটি মামলা রয়েছে। সে একাধিকবার গ্রেফতারও হয়ে জেলও খেটেছেন।
তিনি আরো জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি, ৩টি ককটেল এবং ১ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ঢামেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।
পুলিশের এই কর্মকর্তা আরো জানান, এঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে মাদক, অস্ত্র ও পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় তিনটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির (ইনচার্জ) এসআই বাচ্চু মিয়া আজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহতের মরদেহ ঢাকা মেডিকেলের জরুরী বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে।