রবিবার ২৯শে নভেম্বর, ২০২০ ইং ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

ব্রাজিলের লজ্জার বিদায়ে ফাইনালে জার্মানি

আপডেটঃ ৮:৫০ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ০৯, ২০১৪

একেই বুঝি বলে লজ্জা। আর সেই লজ্জার শিকার হলো পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ও ২০১৪ বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ ব্রাজিল। মাঠের লড়াইয়ে যেন জার্মানির কাছে গুড়িয়ে গেল তারা। তাই ম্যাচের প্রথমার্ধেই ৫ গোল খেয়ে বসে তারা।

মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ২ টায় বেল হরিজন্তেতে মুখোমুখি হয় তারা।

কে ভেবেছিল এমন পরিণতি হবে ব্রাজিলের। যারা ব্রাজিলের সমর্থন করেন না, তারাও হয়তবা এমনটা ভাবতে সাহস পাননি খেলার আগে। প্রায় সবাই-ই ভেবেছিল যে ব্রাজিল ফাইনাল খেলবে। আর মাঠের বাইরে তো ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ফাইনালের ভবিষ্যদ্বানী নিয়ে কম আলোচনা হয়নি। কিন্তু না, তা আর হলো না। আর্জেন্টিনার ভাগ্যে কী আছে তা সময় বলবে। কিন্তু ব্রাজিল পারল না।

এদিন জার্মানিকে যেন গোল করার নেশায় পেয়েছিল। খেলার ১১ মিনিটের মধ্যেই ব্রাজিলের জালে বল পাঠিয়ে গোল উৎসব করে জার্মানরা। টনি ক্রুসের কর্নার থেকে এ গোলটি করেন টমাস মুলার। গোলটি করার সময় ব্রাজিলিয়ানদের তাকিয়ে দেখা ছাড়া আর কিছুই ছিল না।

এখানেই খান্ত হয়নি ইউরোপের জায়ান্টরা। আবারও আক্রমণ। এবং গোল। এবার নায়ক মিরোসাব ক্লোসা। ম্যাচের ২৩ মিনিটের সময় ব্রাজিল গোলরক্ষক হুলিও সিজারকে পরাস্ত করে গোলটি করেন তিনি।

এরপর ২৪ ও ২৬ মিনিটে ব্রাজিলের জালে দু’বার বল জড়ান টনি ক্রস। ফলাফল জার্মানি ৪: ব্রাজিল ০।

এরপর ২৯ মিনিটে এ গোলদাতাদের দলে যোগ দেন স্যামি খেদিরা। আর এতে ৫ গোলের লিড পায় জার্মানরা। এভাবেই শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা।

কিন্তু এদিন যে রেকর্ড ভাঙা-গড়ার মিছিলে নেমেছে জার্মানরা। তাই আর গোল না করলে কী হয়! আর জার্মানরা করল তাই-ই।

দ্বিতীয়ার্ধের ৬৯ ও ৭৯ মিনিটের মাথায় সেলেকাওদের জালে ষষ্ঠ ও সপ্তমবারের মতো বল পাঠায় জার্মানরা। এই দু’বার গোল উদযাপন করেন আন্দ্রে শুরলে। এরপর ব্রাজিলের লজ্জা আর দীর্ঘ করেনি জার্মানরা।

অবশেষে ম্যাচের ৯০ মিনিটের সময় ব্রাজিলের হয়ে একটিমাত্র গোল শোধ করেন অস্কার। এই গোলে তাদের অবশ‌্য কোনো লাভ হয়নি। যা একটু হয়তবা লজ্জা কমেছে মাত্র। শেষ পর্যন্ত এই ফলাফলেই শেষ হয় খেলা।