| |

Ad

সর্বশেষঃ

নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক বিভাগ ও কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশের তদারকির কারণে মহাসড়ক দিয়ে ঈদঘরমুখো যাত্রীরা ফিরছেন স্বাচ্ছন্দে

আপডেটঃ ৩:২৪ পূর্বাহ্ণ | জুন ১৪, ২০১৮

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ  ঢাকা-চট্রগ্রাম- সিলেট মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের খুবই গুরুত্বপূর্ণ শিমরাইলমোড় ও কাঁচপুর পয়েন্ট।এবারের ঈদে পূর্বা লীয় ১৮ টি জেলার যাত্রীদের যানজট বিড়ম্বনায় পড়ার কোন আশংকা নেই, কারণ মহাসড়কে নেই কোন খানাখন্দ ও গর্ত এবং ভাঙ্গাচোরা। আদমজী ইপিজেডসহ বেশীরভাগ পোষাক শিল্পকারখানা ঈদের ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে গত মঙ্গলবার ও গতকাল বুধবার। কিন্তু এখানো মহাসড়ক অনেকটাই ফাঁকা। নেই কোন যানবাহনের চাপ। তথাপিও নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ প্রশাসন প্রস্তুত রয়েছে মহাসড়কে যে কোন ধরনের অপ্রীতকর ঘটনা মোকাবলা করার জন্য। যাত্রী সাধারনও বেজায় খুশি মহাসড়কে যানজট না থাকার কারনে। ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে মহাসড়কের মেঘনাঘাট পর্যন্ত এবং রুপগঞ্জের গাউছিয়া পর্যন্ত কোথাও ভাঙ্গাচোরা রাস্তা নেই। ঈদ ঘরমুখো যাত্রী সাধারন নির্বিঘœ বাড়ি ফিরছেন। নেই মহাসড়কে যানজট। নারায়নগঞ্জ ট্রাফিক বিভাগের ইন্সপেক্টর (টিআই) (প্রশাসন) মোল্যা তাসলিম হোসেন বলেন নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক বিভাগে স্বাভাবিকভাবে ১২০ জন লোকবল কাজ করে, কিন্তু ঈদুল ফিতর উপলক্ষে মহাসড়কে ঈদ ঘরমুখো যাত্রীদের দুর্ভোগ যাতে না হয় যানজট যাতে সৃষ্টি না হয় নির্বিঘেœ বাড়ি ফেরার জন্য নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার ৫৮০ জন লোকবল নিয়োগ করেছেন। এই অতিরিক্তি পুলিশ ফোর্স মোতায়েন করায় মহাসড়কে নির্বিঘেœ যানবাহন চলাচল করছে। কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ওসি কায়ুম আলী সরদার বলেন, কাঁচপুর থেকে মেঘনাঘাট পর্যন্ত মহাসড়ক এবার ভাল, যানজট নেই, অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়েন রয়েছে, হাইওয়ে পুলিশ সার্বক্ষনিক মহাসড়কে কাজ করছে, মহাসড়কে নেই কোন যানজট। হাইওয়ে পুলিশের উদ্যোগে কাঁচপুরে তৈরি করা হয়েছে বিশাল এক ওয়াচটাওয়ার, শিমরাইল ও সাইনবোর্ড এলাকায় আরও দুটি ওয়াচটাওয়ার নির্মাণ করা হয়েছে। ঈদঘরমুখো যাত্রীদের সার্বিক নিরাপত্তা দিতে এবং মনিটরিং করতে ওয়াচটাওয়ারে সার্বক্ষনিক ক্যামেরা নিয়ে পুলিশ প্রহরা থাকবে। ওসি কাইয়ুম আলী সরদার বলেন, ঈদ ঘরমুখো লাখো লাখে যাত্রীদের সুবিধার্থে কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশ মহাসড়কে আছে থাকবে। নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক বিভাগের শিমরাইল এলাকায় দায়িত্বরত টিআই শরীফ-ইল –ইসলাম বলেন ঈদের ৩ দিন আগ থেকে মহাসড়কে ট্রাক কভার্ডভ্যান কার্গো চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার অতিরক্তি ৪৬০ জন পুলিশ ফোর্স দেওয়ার কারণে মহাসড়কে যানজটের আশংকা নেই। যাত্রবাড়ী থেকে কাঁচপুর ব্রিজ পর্যন্ত মহাসড়ক ৮ লেন রয়েছে। যার কারণে যানজটের কোন সুযোগ নেই বলে জানালেন ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মোল্যা তাসলিম হোসেন। রুপগঞ্জের ভুলতায় ফ্লাইওভারের কারণে সেখানে রাস্তাঘাট ভাঙাচোরা রয়েছে, তবে সেখানেও অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে টিআই মোল্যা তাসলিম হোসেন জানালেন। এশিয়ান হাইওয়ে এবং মদনপুরে মহাসড়ক ভাঙ্গাচোরা ছিল যা গত মাসেই মেরামত করে যানবাহন চলাচলের উপযোগী করে তোলা হয়েছে।অপরদিকে ঈদের ৩ দিন আগ থেকে মহাসড়কে সব ধরনের ট্রাক কার্গো ও কভার্ডভ্যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে তাই পূর্বা লীয় ১৮ টি জেলার ঈদ ঘরমুখো লাখো লাখো মানুষকে এবার আর দুর্ভোগে পড়তে হবেনা বলে একাধিক বাস চালক ও পরিবহনের সাথে সংশ্লিষ্টরা জানায়। মেঘনা টোলপাজায় মালবাহী ট্রাক এলামেলোভাবে এবং স্কেলের জন্য ঘন্টার পা ঘন্টা দাঁড়িয়ে থাকার কারণে যাত্রীবাহী বাস যানজটে পড়ে। কিন্তু ট্রাক চলাচল বন্ধ থাকায় এখন আর সেই শংকা নেই। দাউদকান্দি পেরোতে পারলেই যানবাহন নির্বিঘেœ চলে যেতে পারবে বলে গাড়ি চালকরা জানালেন। কাঁচপুর দ্বিতীয় সেতুর নির্মাণ কাজ চলার কারণে ইতিপূর্বে মহাসড়কে প্রায়ই যানজট সৃষ্টি হতো কিন্তু ব্রিজের কাজ অনেকটাই শেষ হয়েছে। যার কারণে এখন আর সে ঝামেলা নেই কাঁচপুর মোড়ে।রুপগঞ্জের তারাব ও ভুলতায় , মদনপুর ও মোগড়াপাড়ায়ও জেলা ট্রাফিক বিভাগের কর্মকর্তারা দৃঢ়তার সাথে তদারকি করার কারণে এবারের ঘরে ফেরা ঈদযাত্রা হবে সবার জন্য মঙ্গলজনক।ঢাকা থেকে মহাসড়কে প্রবেশের আগে প্রথম ধাপ াতিক্রম করতে হয় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংকরোড দিয়ে। সেখানেও রয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা ট্রাফিক বিভাগের কর্মঠ টিআই জিয়াউল করিম, ট্রাফিক পুলিশ সার্জেন্ট শামীম ও সার্জেন্ট আসাদ। তারা সার্বক্ষনিক মনিটরিং করার কারণে যানবাহন অনায়াসেই শিমরাইলমে মোড়ে আসছে, সেকান থেকে টিআইতেদর তদারকির কারণে পুলিশ সার্জেন্ট কামরুল ইসলাম, সার্জেন্ট হাসানুর রহমান, সার্জেন্ট জুহাইর, ঈদ ঘর মুখো যানবাহন স্বাভাবিকভাবেই শিমরাইলমোড় পার করে কাঁচপুর যেতে সহায়তা করছেন। কাঁচপুর থেকে মেঘনাঘাট পর্যন্ত যানবাহন যেতে কাজ করছেন কাঁচপুর হাইওয়ে থানা পুলিশ , ও মদনপুর ও মোগড়াপাড়ায় দায়িত্বরত টিআই রাফিক ও টিআই সাখাওয়াত হোসেনসহ অতিরিক্তি পুলিশ সদ;স্যরা।