| |

Ad

সর্বশেষঃ

বাগেরহাটে পছন্দের শিক্ষককে নিয়োগ দিতে অন্যায়ভাবে ৩ শিক্ষককে বরখাস্তের অভিযোগ

আপডেটঃ ৩:২৮ পূর্বাহ্ণ | জুন ১৪, ২০১৮

এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির- বাগেরহাট অফিস:বাগেরহাটে পছন্দের শিক্ষককে প্রধান শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিতে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকসহ ৩ শিক্ষককে নিয়ম বহির্ভুতভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। বাগেরহাট সদর উপজেলার সুন্দরঘোনা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি কাজী মতিনুর রহমান ২৪ ঘন্টার নোটিসে বরখাস্ত করে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে ব্যাংক থেকে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা তুলে নেয়ার অভিযোগ করেছেন শিক্ষকরা।

বুধবার সভাপতির এসব অনিয়ম, দুর্নীতি ও সেচ্ছাচারিতা বন্ধে জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করেছেন বিদ্যালয়ের বরখাস্ত হওয়া তিন শিক্ষক। বরখাস্তকৃত শিক্ষকরা হলেন, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শেখ শামীম হাসান, সহকারী শিক্ষক (শরীর চর্চা) শেখ মোঃ আবদুল ওয়াহাব ও সহকারী শিক্ষক (কম্পিউটার) মোসাঃ কামরুন্নাহার।

তারা অভিযোগ করেন, শিক্ষক ও অভিভাবকদের সালাম ও সম্মান প্রদর্শন না করা, রমজানে অতিরিক্ত কাস না নেওয়াসহ কয়েকটি অভিযোগ এনে আমাদের বিরুদ্ধে ৪ জুন কারণ দর্শানো নোটিস করেন সভাপতি। ডাকযোগে পাঠানো ঐ নোটিস আমরা ১০ জুন হাতে পাই। পরের দিন নোটিসের জবাব দেই। অথচ ঐদিনই আমাদের নামে বরখাস্তের আদেশ দেন। সাথে সাথে সহকারি শিক্ষক মোঃ শহিদুল্লাহ সরদারকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা তুলে নেন সভাপতি কাজী মতিনুর রহমান।

তারা অভিযোগ করেন সভাপতির অনিয়ম, দুর্নীতি ও নিয়ম বহির্ভুতভাবে পছন্দের শিক্ষক নিয়োগের বিরুদ্ধে কথা বলায় তাদের বিরুদ্ধে এ ধরণের শাস্তি মূলক ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। যা বিধি বহির্ভুত ও অমানবিক।

বাগেরহাট জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ কামরুজ্জামান বলেন, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এটা অস্বাভাবিক। এক সাথে ৩জন শিক্ষককে বরখাস্ত করা বিধি বহির্ভুত।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি কাজী মতিনুর রহমানকে ফোন করা হলে সরাসরি কথা বলবেন বলে এড়িয়ে যান। তবে দ্বিতীয়বার ফোন করা হলে তিনি কোন কথা বলতেই রাজি হননি।