শুক্রবার ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

‘মানুষ জালিম সরকারের হাত থেকে বাঁচতে চায়’

আপডেটঃ ৭:৪২ অপরাহ্ণ | জুলাই ০৯, ২০১৪

দেশে খুন-রাহাজানি নিত্যকার ঘটনা হয়ে উঠেছে। মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই, মানুষ দু’বেলা দু’মুঠো খেয়ে ঠিকভাবে রোজা পালন করতে পারছে না। বিরোধী দল দমনে ব্যস্ত এই সরকারের হাত থেকে জনগণ বাঁচতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে রাজনীতিক, বুদ্ধিজীবী, পেশাজীবী ও সাংবাদিকদের সম্মানে জামায়াত আয়োজিত ইফতার অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

খালেদা বলেন, দেশের অবস্থা খুবই নাজুক। মানুষ অতিকষ্টে জীবন-যাপন করছে। ঠিক মতো খেয়ে-দেয়ে রোযা পালন করতে পারছে না। সেহরি কিংবা ইফতারও করতে পারছে না।

তিনি বলেন, সরকার দেশকে একেবারে শেষ করে দিয়েছে। ব্যাংক লুটপাট ‍আর খুন-গুম ছাড়া সরকার দেশের মানুষকে কিছুই দিতে পারেনি। খুন-রাহাজানি-ছিনতাই নিত্যকার ঘটনা হয়ে পড়েছে। মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই, মানুষ এখন একেবারে অসহায়। জনগণ এই অত্যাচারী জালিম সরকারের হাত থেকে বাঁচতে চায়।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেণ, দেশকে এই অবস্থা থেকে রক্ষা করতে হবে। এজন্য দলমতের ঊর্ধ্বে ওঠে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থেকে দেশরক্ষায় এগিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, ২০ দলীয় জোট ঐক্যবদ্ধ আছে, দেশবাসীকেও ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। যারা দেশের ক্ষতি করছে তাদের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে হবে। জনগণের ভোটের অধিকার ও গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে।

ঈদের পর সরকারের বিরুদ্ধে কঠোর কর্মসূচি দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়ে খালেদা সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।

তিনি অভিযোগ করেন, সরকারের সঙ্গে জনগণ নেই। তারা পুলিশ-ৠাব দিয়ে খুন-খারাবি করে ক্ষমতায় টিকে আছে। এভাবে ক্ষমতায় থাকতে পারবে না।

খালেদা আরও অভিযোগ করেন, টাকার বিনিময়ে ৠাবকে দিয়ে খুন-গুম করানো হচ্ছে এটা দেশের মানুষ জানে।

তিনি অবিলম্বে নিরপেক্ষ সরকারের অধীন নির্বাচনের দাবি জানিয়ে বলেন, দেশে শান্তি ও স্থিতাবস্থা ফিরিয়ে আনতে কাজ করুন। ‍আমরা সকলেই দেশের জন্য কাজ করতে চাই।