| |

Ad

সর্বশেষঃ

চ্যানেল সেভেন এর সাথে একান্ত স্বাক্ষাতকারে আগামী দিনে ছাত্রলীগের উন্নয়নে দলের একজন কর্মী হিসেবে সততা ও নিষ্টার সাথে কাজ করে যাবো ———— টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মো: জুলহাস খান

আপডেটঃ ৭:৪৩ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ১২, ২০১৮

এস. এম. মনির হোসেন জীবন ॥ টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমানে টঙ্গী থানা আওয়ামী যুবলীগের প্রভাবশালী এবং দলের তৃণমুল নেতা মো: জুলহাস খান বলেছেন, আগামী একাদ্বশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের উন্নয়নে দলের একজন সক্রিয় কর্মী হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জাতির জনকের সুযোগ্য কণ্যা দেশরতœ শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ তথা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়া লক্ষ্যে সর্বস্তরের মানুষের পাশে থেকে জনগনের কল্যাণের জন্য সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাবো। গাজীপুর মহানগরী ও টঙ্গীবাসির সহ সমাজের মানুষের সুখ, দু:খে পাশে থেকে তাদের সেবা করতে চাই। এই হোক আমার আগামী দিনের অঙ্গীকার।

আজ বুধবার দুপুরে অনলাইন নিউজ পোর্টাল ’’ চ্যানেল সেভেন বিডি ডটকম’’ এর সাথে একান্ত স্বাক্ষাতকারে টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মো: জুলহাস খান এসব কথা বলেন।
সারা দেশ ব্যাপী সরকারের সরকারের ধারাবাহীক উন্নয়নের কথা তুলে ধরে সাবেক এই ছাত্রনেতা মো: জুলহাস খান বলেন, গাজীপুরের ভাওয়ালবীর,প্রখ্যাত শ্রমিকনেতা,গাজীপুর-২ আসনের প্রয়াত সংসদ সদস্য, শিক্ষক এবং বীরমুক্তিযোদ্বা শহীদ আহসান উল্লাহ মাষ্টারের সুযোগ্য সন্তান বর্তমানে গাজীপুর-২ আসনের এমপি আলহাজ মো: জাহিদ আহসান রাসেলের সার্বিক সহযোগিতার কারণে আজ আমরা গাজীপুর ও টঙ্গীর বাসিন্দার উন্নয়নের ধারপ্রান্তে পৌছাতে পেরেছি। এলাকার আপামর জনগন উন্নয়নের একটি মাইলফলক হিসেবে জনগনের সামনে ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছি বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মো: জুলহাস খান।
মো: জুলহাস খান টঙ্গীবাসির সদস্যার কথা তুলে ধরে বলেন, গাজীপুর ও টঙ্গীবাসির পাশে থেকে এই এলাকার ধারা বাহীক উন্নয়ন মূলক কাজ গুলোকে আগামী দিনে আরো এগিয়ে নিয়ে দলের সক্রিয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে করে যাচিছ। এখনও আমার ওয়ার্ডে (টঙ্গী পূর্ব আরিচপুর) এলাকার জনগন অনেক সমস্যা নিয়ে চলাফেলা করছে। অল্প বৃষ্টিতে এলাকার অনেক বাসা-বাড়ি ও রাস্তায় জলাবদ্বতার সৃষ্টি হয়। স্কুল কলেজে যেতে ও চলাফেরা করতে নানাবিধ সমস্যার সম্মুখিন হয়। এছাড়া অনেক বাসা বাড়িতে মুষলধারে বৃষ্টিপাত হলে এলাকার বাসা বাড়িতে পানি উঠে যায়। তখন শিশু, মহিলা ও শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হয়। অচিরেই এসব সমস্যা সমাধানের জন্য গাজীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ মো: জাহিদ আহসান রাসেল, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নব নির্বাচিত নগরপিতা মেয়র) আলহাজ এ্যাডভোকেট মো: জাহাঙ্গীর আলম সহ জিসিসি’র ৪৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহ আলম রিপনের সার্বিক সহযোগিতা ও সুদৃষ্টি কামনা করছি।
এক প্রশ্নের জবাবে টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মো: জুলহাস খান বলেন, টঙ্গী আরিচপুর বাসির উন্নয়নের জন্য এবং জলাবদ্বতা নিরসনের জন্য গাজীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ মো: জাহিদ আহসান রাসেল (এমপি) নিরলস ভাবে কাজ করে যাচেছন। কয়েকটি রাস্তা ইতি মধ্যে প্রকল্প হয়ে গেছে। আশা করি নতুন করে বেশকয়েকটি রাস্তা সহ ড্রেনের ব্যবস্থার উন্নয়ন শিগগিরই করা হবে।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে মো: জুলহাস খান বলেন, বর্তমান সরকারের শাসনামলে সারা দেশের ন্যায় গাজীপুর তথা টঙ্গীর এলাকায় যে পরিমান উন্নয়ন হয়েছে অতীতে আর কোন সরকারের আমলে সেটি হয়নি। বর্তমান সরকার হলো উন্নযনের সরকার। জাতির জনকের কণ্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচেছ, এগিয়ে যাবে। সে কারণে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুরের উন্নয়নের রূপকার আলহাজ মো: জাহিদ আহসান রাসেল (এমপি) কোন বিকল্প নেই। তাকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুর-২ আসনের উন্নয়নের জন্য আবার এমপি হিসেবে জনগন দেখতে চায়।
মাদক, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সারা দেশব্যাপী মাদকবিরোধী অভিযান শুরু করা হয়েছে। সত্যিকার অর্থে এটি একটি ভাল উদ্যোগ। এজন্য আমি জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা দেশরতœ শেখ হাসিনাকে আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাচিছ।
সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মো: জুলহাস খান বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গী, জঙ্গীবাদ ও মাদক দেশও জাতির চিরশত্রু। বর্তমান সরকার কঠোর হস্তে এগুলো দমন করার জন্য নিরলস ভাবে রাত দিন কাজ করে যাচেছন। আগামী দিনে সকলকে সাথে নিয়ে কাজ করতে চাই। সবাইকে পাশে রাখতে চাই। সকলে মিলে মিলে এলাকার উন্নয়নের জন্য সেবা করতে চাই। আমি আপনাদের পাশে আছি, ছিলাম এবং ভবিষ্যতে ও থাকবো।
জুলহাস খান আরো বলেন, বর্তমান সরকারের শাসনামলে আলহাজ মো: জাহিদ আহসান রাসেল (এমপি) গাজীপুরের যে ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়াম, শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার উড়ালসেতু, শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল, রাস্তাঘাট, কালবার্ট, ব্রিজ, মসজিদ, মাদ্রাসা, সরকারী স্কুল কলেজ, ও ড্রেনের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আগামী দিনে উন্নয়নের ধারা পর্যায়ক্রমে আরো অব্যাহত থাকবে ।
দেশের পদ্মাসেতু, ফ্লাইওভার ও মেট্রোরেল প্রসঙ্গে টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমানে টঙ্গী থানা আওয়ামী যুবলীগের প্রভাবশালী নেতা মো: জুলহাস খান বলেন, আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসলে দেশের মানুষের ব্যাপক উন্নয়ন হয়। আর বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় আসলে দেশ ধংশ হয়ে যায়। বর্তমান সরকার দেশীয় টাকা দিয়ে পদ্মা সেতু নির্মান করছেন। বিদেশী অর্থায়নে নয়। এটা সত্যিকারে গোটা বাঙ্গালী জাতির গর্ব। এছাড়া ফ্লাইওভার ও মেট্রোরেল তৈরী করছেন সরকার। অতীতে আর কোন সরকার তার করতে পারেনি। সেজন্য আমি বর্তমান সরকারকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাচিছ।
তিনি আরো বলেন, আগামী দিনে আওয়ামীলীগ সরকার পূনরায় ক্ষমতায় আসবে এবং দেশের ব্যাপক উন্নয়ন ঘটাবে এটা আমার বিশ্বাস। এজন্য দলীয় নেতাকর্মীদেরকে এখন থেকে একত্রিত হয়ে দেশের জন্য কাজ করতে হবে। দেশ উন্নয়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই।
সাবেক ছাত্রনেতা মো: জুলহাস খান বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার আদর্শকে মনেপ্রাণে ভালবেসে আমার পরিবারের সকলে জন্মলগ্ন থেকে আওয়ামীলীগ,যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে কাজ করে আসছি। আমার পরিবারের সকলে আওয়ামীলীগ রাজনৈতিক সংগঠনের সাথে জন্মলঘœ থেকে জড়িত । এছাড়া জিসিসি’র ৪৫ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক হুমায়ুন কবির রুবেল হলো আমার আপন বড় ভাই।
তিনি আরো বলেন, টঙ্গী থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও এককালে কারানির্যাতিত নেতা মো: রজব আলী হলেন আমি রাজনীতি গুরু। তার হাত ধরে আমার ছাত্ররাজনীতিতে প্রথম আগমন ঘটে। তিনি এক দলের তৃনমূল পর্যায়ের বলিষ্ট নেতা। এছাড়া আমি বিভিন্ন স্কুল কলেজ, মসজিদ মাদ্রাসা, এতিমখানা সহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত আছি। নৌকার পক্ষে আমরা সকলে একমত। আগামী দিনে দেশের মানুষের জন্য এবং গাজীপুরের নগবাসির সার্বিক উন্নয়নে নিরলস ভাবে কাজ করবো।
তিনি আরো বলেন, বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ,স্বেচছাসেবকলীগ ও মহিলালীগ সহ সহযোগী অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সাথে আমার সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রয়েছে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সহ দলীয় কর্মসূচিতে তার সুযোগ্য ও সঠিক নেতৃত্বেও কারণে আমাদের আগামী দিনের পথচলা ও অনুপ্রেরনা যোগাবে। আগামী দিনে গাজীপুর-২ আসনের এমপি আলহাজ মো: জাহিদ আহসান রাসেলের হাতকে বেগমান ও আরো শক্তিশালী করতে এখন থেকে দলের সকল স্তরের নেতাকর্মী ও মানুষকে ঐক্যবদ্ব হয়ে দলের একজন একনিষ্ট কর্মী হিসেবে কাজ করতে হবে। এই হোক আমাদের আগামী দিনের বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ার চির প্রত্যয়।