| |

Ad

সর্বশেষঃ

রাজশাহীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা ভুলুর দাফন সম্পন্ন

আপডেটঃ ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮

নাজিম হাসান, রাজশাহী থেকে:  বীর মুক্তিযোদ্ধা ও রাজাশাহী অ লের বর্ষীয়ান নেতা মাহবুব জামান ভুলুর দাফন সম্পন্ন হয়েছে। আওয়ামী লীগের এই প্রবীণ নেতার দাফনের আগে গতকাল বুধবার দুপুর ২টার পর রাজশাহী কলেজ মাঠে জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এবং স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন।

জানাযা শেষে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় হেতেমখাঁ গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে তিনি হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। এর আগে মুক্তিযোদ্ধা ভুলুর কফিন জাতীয় পতাকায় মুড়িয়ে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে রাখা হয়।

সেখানে তাকে রাজশাহীর সকল স্তরের মানুষ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করে। এদিকে যানাজায় সর্বস্থরের বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশগ্রহণ করেন। এসময় রাজশাহী কলেজ মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়।

যানাজায় উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র পতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, দলটির সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, রাজশাহী-২ আসনের সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা, রাসিক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন, রাজশাহী-১ আসনের সাংসদ ফারুক চৌধুরী, রাজশাহী-৪ আসনের সাংসদ এনামুল হক, রাজশাহী-৩ আসনের সাংসদ আয়েন উদ্দিন, রাজশাহীর সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ আক্তার জাহান, রাজশাহী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার, রাজশাহী বিভাগের অতিরিক্ত কমিশনার (সার্বিক), রাজশাহী জেলার প্রশাসক আব্দুল কাদের, রাজশাহী মহানগর পুলিশের কমিশনার, আওয়ামী লীগ নেতা ঠান্ডু, বিএনপি চেয়াম্যানের উপদেষ্টা ও সাবেক সাংসদ মিজানুর রহমান মিনু, মহানগও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকাসহ বিভিন্ন সরকারী প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ ও রাজশাহীর বিভিন্ন সংঘঠনের সদস্যবৃন্দ।

মাহবুব জামান ভুলু আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য ছিলেন। ছাত্রলীগ ও যুবলীগ করে আসা এ নেতা রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মহানগরের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন দীর্ঘদিন। ২০১১ সালে আওয়ামী লীগ সরকার দলের পরীক্ষিত এই নেতাকে জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেয়। ২০১৬ সাল পর্যন্ত তিনি এ পদে ছিলেন।

মঙ্গলবার বিকালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ৭৫ বছর বয়সে তিনি মারা যান।