| |

Ad

সর্বশেষঃ

সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনে আশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর

আপডেটঃ ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ০৬, ২০১৮

ডেস্ক রিপোর্ট -:  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবারো আগামী সাধারণ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠানের আশ্বাস দিয়ে আশা প্রকাশ করেছেন যে, গত ১০ বছরের উন্নয়ন ও অগ্রগতির মূল্যায়ন করে দেশের জনগণ আবারো আওয়ামী লীগকে নির্বাচিত করবে। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় গণভবনে ১৪ দলীয় জোটের এক সভায় সূচনা বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ভোটাধিকার প্রয়োগ জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার। তাই আগামী নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু নিরপেক্ষভাবে সম্পন্ন হবে, এ নিয়ে কোন সংশয় নেই।’ আওয়ামী লীগ সভাপতি আরো আশা প্রকাশ করেন যে, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল ও জোটসমূহ গঠনমূলক ভূমিকা রাখবে। তিনি বলেন, গত ১০ বছরে সকল নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শেখ হাসিনা উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সকলের প্রতি তাঁর দলের নির্বাচনী প্রতীক ‘নৌকা’য় ভোট দেয়ার আহ্বান জানান। তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, দেশ পরিচালনা, আইন-শৃঙ্খলা ও সার্বিক উন্নয়ন ও অগ্রগতি অর্জনে সরকারের সাফল্য মূল্যায়ন করে জনগণ আওয়ামী লীগকে পুনর্নির্বাচিত করবে। বিএনপি-জামায়াত আমলের সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিবাদ, দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের কালো অধ্যায়ের উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি আবার ক্ষমতায় এলে বাংলাদেশ আবারো সেই ধরনের অপরাধের দেশে পরিণত হবে।
তিনি বলেন, ‘বিএনপি আবার ক্ষমতায় এলে জনগণ উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত হবে এবং তাদের ভাগ্য পরিবর্তন হবে না।’ বর্তমান সরকারের ১০ বছর শাসনকালে দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এ সময়ে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে উত্তীর্ণ হয়েছে, জিডিপি প্রবৃদ্ধি বেড়েছে এবং দারিদ্র্যের হার উল্লেখযোগ্য হারে কমেছে।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, জনগণ নতুন করে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে। তারা বিশ্বাস করে যে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে দেশ উন্নত হয়। তিনি বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে জনগণ আওয়ামী লীগকে পুনর্নির্বাচিত করলে বাংলাদেশ একটি উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে।’

সূত্র: বাসস।