শুক্রবার ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

জামালপুরে জোর পূর্বক বাল্য বিয়ে

আপডেটঃ ৬:২৩ অপরাহ্ণ | জুলাই ১৩, ২০১৪

॥ তানভীর আহমেদ হীরা,জামালপুর প্রতিনিধি ॥

জামালপুর সদর উপজেলার নান্দিনার পলাশতলা গ্রামে নাবালিকা পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে জোর পূর্বক বিয়ে দিয়েছে গ্রামের কথিত মাতাব্বরা। ফলে ওই স্কুল ছাত্রী শিক্ষা জীবন থেকে অকালে ঝড়ে গেলো। এই বাল্য বিয়ের কাবিন করেছেন স্থানীয় এক নিকাহ রেজিষ্টার।
জানা গেছে, জামালপুর সদর উপজেলার নান্দিনা পলাশতলা গ্রামের আব্দুল মোতালেবের কন্যা আনিকা খাতুন স্থানীয় পলাশতলা সরকারী প্রাইমারী স্কুলের পঞ্চম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী। এলাকার কতিপয় ব্যাক্তি ১৩ জুলাই জোর পূর্বক নাবালিকা আনিকা (১২)কে বিয়ে দেয় ডিগ্রী পরীক্ষার্থী আল আমীন নামে এক ছেলের কাছে। বিয়েটি কাবিন করেছেন স্থানীয় নিকাহ রেজিষ্টার আক্তারুজ্জামান। বিয়ের পূর্বে বর-কনে উভয়ই এই বিয়ে ভাঙ্গার জন্য অনেকের কাছে আপত্তি করেছে। কিন্তু কেউ তাদের ডাকে সাড়া দেয়নি। ফলে বাধ্য হয়েই বিয়ের পিড়িতে বসেছে আনিকা ও আল আমীন। তাই অনিকা স্কুল ছেড়ে শশুড় বাড়ীর হাল ধরেছে। নাবালিকা অনিকা এখন নববধূ। এই বাল্য নিয়ে এলাকার সাধারণ লোকজনের মধ্যে বিরোপভাব দেখা দিয়েছে এবং অনিকার সহপাঠীদের মধ্যে বাল্য বিয়ে আতংক বিরাজ করছে।

তানভীর আহমেদ হীরা
জামালপুর প্রতিনিধি