সোমবার ২২শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ৯ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

অন্তঃসত্ত্বা ইউএনও- ওএসডি- দুই সংসদ সদস্যের ক্ষোভ

আপডেটঃ ৭:৫৮ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯

ডেস্ক রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হোসনে আরা বেগমকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করার কারণ জানতে চেয়েছেন দুই সংসদ সদস্য। পাশাপাশি একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

সোমবার জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে প্রাক্তন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এ দাবি জানান। মেহের আফরোজ চুমকির বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করে কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ সদর আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান।

মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, হোসনে আরা বেগম একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে আছেন। একাদশ সংসদ নির্বাচনে তিনি সহকারী রিটার্নিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করে থাকে তাহলে একজন সন্তানসম্ভবা নারীকে কেন ওএসডি করা হলো? এ ঘটনায় আমি বিভাগীয় তদন্ত দাবি করছি।

শামীম ওসমান বলেন, বিষয়টিতে আমি লজ্জিত। কেননা, ঘটনাটি আমার নির্বাচনী এলাকায়। তিনি আমার এলাকা সদরের ইউএনও। একজন সৎ কর্মজীবী অত্যন্ত কর্মঠ ভালো কর্মকর্তা হিসেবে উনি আমার কাছে বারবার প্রতীয়মান হয়েছেন।

তিনি বলেন, নির্বাচনে ঠিক আগ মুহূর্তে যখন অনেকেই চান তাদের পছন্দমতো লোক বসাতে, তখন আমাকেও বলা হয়েছিল। আমি সেই সময় মেয়েটিকে বলেছিলাম, আপনি পারবেন কি না? তখন তিনি ৪-৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। তখন তিনি বলেছিলেন, আমি কাজটি করতে পারলে সুস্থ থাকব। তখন আমি তাকে একজন ভাই হিসেবে বলেছিলাম, আপনি কাজ করতে পারেন, তবে এক শর্ত- অধিক কাজ করবেন না।

তিনি আরো বলেন, কার নির্দেশে তাকে ওএসডি করা হলো? বদলি করলে একটা কথা ছিল। ওএসডি করার পর বাচ্চা প্রসব করল, সেই বাচ্চাটির যে অবস্থা, আমি শঙ্কিত। বাচ্চাটি বাঁচবে কি না? যদি খারাপ কিছু হয় তাহলে আমি নিজেকে ক্ষমা করতে পারব না।