রবিবার ২১শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৬ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

স্পেশাল টাস্কফোর্স অভিযানের দ্বিতীয় দিনে সোমবার ৬৭৭ টি গণপরিবহনে তল্লাশি চালিয়ে ২২৪ গাড়ির বিরুদ্ধে প্রসিকিউশন, ১৪৬টি গাড়ি রেকারিং ও ছয়টি গাড়ি ডাম্পিং

আপডেটঃ ৩:০৯ পূর্বাহ্ণ | মার্চ ২৬, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক -:রাজধানীতে গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরানোর লক্ষ্যে ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ কর্তৃক গঠিত স্পেশাল টাস্কফোর্স ট্রাফিক আইন অমান্যকারী যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা রেকারিং ও ডাম্পিং অব্যাহত রেখেছে।স্পেশাল টাস্কফোর্স অভিযানের দ্বিতীয় দিনে সোমবার ৬৭৭টি গণপরিবহনে তল্লাশি চালিয়ে ২২৪ গাড়ির বিরুদ্ধে প্রসিকিউশন, ১৪৬টি গাড়ি রেকারিং ও ছয়টি গাড়ি ডাম্পিং করেছে।ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের এডিসি ওবায়দুর রহমান জানান, অভিযানকালে ফিটনেস ও রুট পারমিটহীন গণপরিবহন, ইন্টারসেকশনে এবং বাসস্ট্যান্ডে প্রতিযোগিতামূলক বা আড়াআড়িভাবে চলাচলরত এবং অন্য পরিবহন চলাচলে বাধা, যত্রতত্র থামানো ও যাত্রী ওঠানামা করা, দরজা খোলা রাখা, রংচটা ও লক্কর-ঝক্কর পরিবহনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে স্পেশাল টাস্কফোর্স।

তিনি বলেন, অভিযানকালে ট্রাফিক উত্তর বিভাগ রাজধানীর খিলক্ষেত, নতুন বাজার ও কোকাকোলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৭০টিগণপরিবহন তল্লাশি করে ৩২টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা ও ৪৩টি গাড়ি রেকারিং করে।ট্রাফিক পূর্ব বিভাগ গুলিস্তান ট্রাফিক বক্স, মৌচাক ক্রসিং ও গোলাপবাগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২১০টি গণপরিবহন তল্লাশি করে ৪১টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা, ৩১টি গাড়ি রেকারিং ও একটি গাড়ি ডাম্পিং করে।

ট্রাফিক পশ্চিম বিভাগ মিরপুর মাজার রোড, মিরপুর-১ ও মিরপুর-১০ এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৪৭টি গণপরিবহন তল্লাশি করে ৪৮টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা, ২৭টি গাড়ি রেকারিং ও ৪টি গাড়ি ডাম্পিং করে এবং ট্রাফিক দক্ষিণ বিভাগ কলাবাগান, সাইন্সল্যাব ও আজিমপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৫০টি গণপরিবহন তল্লাশি করে ১০৩টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা, ৪৫টি গাড়ি রেকারিং ও ১টি গাড়ি ডাম্পিং করে।এর আগে গঠিত স্পেশাল টাস্কফোর্স অভিযানের প্রথম দিন রোববার ট্রাফিক আইন অমান্যকারী ৪৬০টি গণপরিবহনে তল্লাশি করে ১৬১টি গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা, ৮০টি গাড়ি রেকারিং ও ১১টি গাড়ি ডাম্পিং করে।রোববার (২৪ মার্চ) থেকে শুরু হওয়া স্পেশাল টাস্কফোর্সের কার্যক্রম চলবে আগামী ২৩ এপ্রিল পর্যন্ত।