রবিবার ২৬শে মে, ২০১৯ ইং ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

চৌগাছা প্রেসক্লাবের সার্টার ঘেষে ৩টি পেট্রোল বোমা উদ্ধার

আপডেটঃ ৫:৫৩ অপরাহ্ণ | মে ১৭, ২০১৯

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃ যশোরের চৌগাছা প্রেসক্লাবের সার্টারের নিকট থেকে ৩টি পেট্রোল বোমা উদ্ধার করেছে পুলিশ। অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা পরিকল্পিভাবে এই বোমা রেখেছে বলে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দরা জানিয়েছেন।  সাংবাদিকদের মধ্যে ভীতি সঞ্চার করার লক্ষে এই বোমা রাখা হয়েছে বলে অনেকে জানান।পুলিশ ও সাংবাদিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে বা বৃহস্পতিবার ভোরে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা চৌগাছা বাজারে অবস্থিত প্রেসক্লাব কার্যালয়ের সামনে ৩টি পেট্রোল বোমা রেখে যায়। প্রেসক্লাবের পাশে অবস্থিত লাকি ফার্মেসিতে আসা ওষুধ ক্রেতা তন্ময় নামের এক যুবক প্রথমে বোমা তিনটি দেখতে পান। বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে থানা পুলিশকে তিনি মুঠোফনে জানান। 

এ খবরে থানার এ এস আই রবিউল ইসলাম বোমা ৩টি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এ এস আই রবিউল ইসলাম জানান, তন্ময় নামের একটি ছেলে ফোনে জানাই প্রেসক্লাবের সামনে বোমা রাখা রয়েছে। এ বিষয়টি আমি আমার কর্তৃপক্ষকে জানায়। কর্তৃপক্ষ নির্দেশ দিলে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে বোমা সদৃশ্য ৩টি পেট্রোল বোমা উদ্ধার করি। তিনি বলেন, তিনটি লম্বা বোতলে লাল টেপ মারা রয়েছে। বোতলের একপাশে আগুন ধরানোর বাড়তি রশি আছে। তবে এটি পেট্রোল বোমা কিনা সেটা আমরা খতিয়ে দেখছি।

এ বিষয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ রিফাত খান রাজিবের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ প্রেসক্লাবের সার্টারের নিকট থেকে লাল টেপ দিয়ে মোড়ানো বোমা সদৃশ্য ৩টি বোতল উদ্ধার করা হয়েছে। বিষয়টি আমরা গুরুত্বের সাথে নিয়ে খোঁজ খবর নিতে শুরু করেছি।
এদিকে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দরা জানান, প্রেসক্লাবের জমিদান ও উন্নয়নের জন্য প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ আবু জাফর সকলের পরামর্শে বিগত কমিটি বিলুপ্ত করেন। পরবর্তীতে একটি কমিটি গঠন করা হয়।  নতুন কমিটি গঠন হবার পর সাংবাদিকদের সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল (অবঃ) অধ্যাপক ডাঃ নাসির উদ্দিন। প্রেসক্লাবের জমি দানের জন্য ইতোমধ্যে তিনি পাবলিক লাইব্রেরীরর পাশে জমি পরিদর্শণ করেছেন।

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দরা জানান, সারা দেশে ইতোপূর্বে পেট্রল বোমা ও ককটেল বোমা ব্যবহার করেছে কারা তা আমরা জানি। আমাদের ধারনা ওই গোষ্ঠি এই বোমা রাখতে পারে। এদিকে প্রেসক্লাবের সামনে পেট্রোল বোমা রাখার প্রতিবাদে প্রেসক্লাব কার্যালয়ে বেলা সাড়ে ১১ টায় জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা থেকে এ ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান, প্রেসক্লাবের সভাপতি আলমগীর মতিন চৌধুরী, সিনিয়র সহ-সভাপতি সহকারী অধ্যাপক ইয়াকুব আলী, সহ-সভাপতি শিহাব উদ্দীন ও শেখ ওয়ালিউর রহমান, সাধারণ সম্পাদক শাহানুর আলম উজ্জ্বল, রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মুকুরুল ইসলাম মিন্টু, প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক খাজা ফজিল আইজ উজ্জ্বল, সহ-সম্পাদক খালেদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এম শাহীন, অর্থ সম্পাদক অমেদুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক বাবলুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শামীম রেজা, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক খলিলুর রহমান জুয়েল, নির্বাহী সদস্য হাসান মাহমুদ, কবিরুল ইসলাম, আব্দুল আলীম, মহিদুল ইসলাম প্রমূখ।