বৃহস্পতিবার ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

বিশকা আহমাদ আলতান দারুল মাদ্রাসায় ত্রান বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম।

আপডেটঃ ১০:৪৩ অপরাহ্ণ | জুলাই ১৮, ২০১৪

জাহেদী ফাউন্ডেশনের খাদ্য সামগ্রী না পেয়ে হতাশা দাড়িয়ে আছেন হতদরিদ্র মানুষ জন।

ময়মনসিংহ থেকে শাহিনঃ তারাকান্দা উপজেলার বিশকা ইউনিয়নে আহমাদ আলতান দারুল মাদ্রাসায় পবিত্র রমজান উপলক্ষে জাহেদী ফাউন্ডেশন কর্তৃক দুস্থ অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ নিয়ে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
যানা যায়, তারাকান্দা বিশকা ইউনিয়নে আহমাদ আলতান দারুল মাদ্রাসায় পবিত্র রমজান উপলক্ষে তুরস্ক ও বাংলাদেশ যৌথ জাহেদি ফাউন্ডেশন সহয়তার অসহায় ও হতদরিদ্র দুই থেকে আড়াই হাজার পরিবারের মাঝে এই খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়ার কথা। জানা যায়, আহমাদ আলতান মাদ্রাসা ২০১০ সালে দক্ষিণ বিশকা গ্রামে স্থাপিত হয়। এই মাদ্রাসায় সার্বিক সহযোগীতা করেন তুরস্কের জাহেদি ফাউন্ডেশন। এবং তিন কাঠার জায়গার উপর নির্মিত ২ তলা এই মাদ্রাসা। সার্বিক পরিচালনা এবং দেখাশোনার দায়িত্ব নেন মৌলনা এমদাদুল হক। তার নিজস্ব ভূমি দেওয়ার কথা থাকলেও এখন পর্যন্ত এই মাদ্রাসার নামে ১ শতাংশ ভূমিও দান করেন নাই। অভিযোগের প্রেক্ষিতে জানা যায়, গত ০৯/০৭/১৪ইং তুরস্কের জাহেদী ফাউন্ডেশন কর্তৃক আড়াই হাজার অসহায় ও হতদরিদ্রের মাঝে টোকেনের মাধ্যমে বিতরন করা হয়। কিন্তু প্রতি টোকেন ২০০/২৫০ টাকার বিক্রিয় বিক্রয় করা হয়। ১০/০৭/১৪ইং তারিখে অসহায় হতদরিদ্র মানুষ যখন এই লাইনে দাড়ায় তখন অশ্লিল ভাষায় গালিগালাজ ও ধাক্কা দিয়ে বিদায় করেদেন বলে অভিযোগ করেন শহীদের মা। টোকেন ক্রয়কৃত বিশকা গ্রামের সাবেদ আলী বলেন, ৫টা টোকেন ১০০০ টাকায় কিনছি মাল দেওয়ার কথা ছিল ১ টোকেনে ১০ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ১ লিটার সোয়াবিন। সেখানে পেলাম ৬ কেজি চাল, ৩০০ গ্রাম ডাল, ১ লিটার সোয়াবিন, আর বাকী গুলো সংস্থার উন্নয়নের জন্য রেখে দিয়েছেন। স্থানীয় মেম্বার বলেন, সব টোকেন আগে বিক্রি হয়ে গেছে এখন ৪/৫ শত টোকেন এই এলাকা এবং বিভিন্ন উপজেলার মানুষের কাছে বিতরণ করা হয়েছে। এই ৪/৫ শত লোক জাহেদী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যানকে দেখানো হয়েছে। তিনি আরো বলেন এই এলাকার কোন অসহায় ও হতদরিদ্র মানুষের মাঝে এই টোকেন গুলো দেওয়ার কথা থাকলেও তা দেওয়া হয় নাই। এগুলো মাদ্রাসার মৌলান এমদাদুল হক আত্মৎসাত করেছে বলে অভিযোগ করেন। বিশকা ইউপি চেয়ারম্যান আলী আহম্মদ মাস্টার বলেন, জাহেদী ফাউন্ডেশন কর্তৃক ত্রাণ বিতরণের অনিয়ম শুনেছি কেউ আমার কাছে অভিযোগ করেনি, অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব। এদিকে এমদাদুল হক মৌলানার সাথে কথা বলে জানা যায়, আমরা জাহেদী ফাউন্ডেশন কর্তৃক রমজান উপলক্ষে খাদ্য সামগ্রী অসহায় ও দুস্থদের মাঝে সঠিকভাবে বিতরণ করেছি। এর বেশি কিছু বলতে তিনি রাজি হননি।

তৌকির আহম্মেদ শাহীন
তারাকান্দা, ময়মনসিংহ
প্রতিনিধি