বুধবার ২৬শে জুন, ২০১৯ ইং ১২ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

উড়ন্ত ট্যাক্সি আনছে উবার

আপডেটঃ ৪:১০ পূর্বাহ্ণ | জুন ১৩, ২০১৯

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক :উবারের বহর এবার অন্য মাত্রায় পৌঁছাতে চলেছে। রাইড শেয়ারিংয়ে উড়ন্ত ট্যাক্সি যুক্ত করার পরিকল্পনা করছে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানিটি।আর এই উড়ন্ত ট্যাক্সির পরীক্ষামূলক যাত্রার জন্য লস অ্যাঞ্জেলেস এবং ডালাস- এই দুইটি বড় শহরের পর তৃতীয় শহর হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নকে বেছে নিয়েছে উবার। এটি কোম্পানিটির একটি উচ্চাকাঙ্ক্ষী প্রকল্প, যার মাধ্যমে আকাশ পথে স্বল্প সময়ে মানুষকে গন্তব্যে পৌঁছে দিতে চায় উবার।

২০২০ সালে প্রকল্পটির পরীক্ষামূলক যাত্রা শুরু করার পরিকল্পনা করছে উবার। আর ২০২৩ সালের মধ্যেই উড়ন্ত ট্যাক্সির মাধ্যমে বাণিজ্যিকভাবে যাত্রী পরিবহনের প্রত্যাশা করছে কোম্পানিটি। তবে উড়ন্ত ট্যাক্সির মাধ্যমে গন্তব্যে পৌছাতে খুব বেশি অর্থ গুণতে হবে না যাত্রীদেরকে। এর খরচ উবার এক্স এর মতোই হবে বলে দাবি করেছে কোম্পানিটি।

উবার অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড এবং উত্তর এশিয়া অঞ্চলের মহাসচিব সুসান এন্ডারসন এক বিবৃতিতে বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন রাজ্যের সরকার রাইড শেয়ারিং এবং ভবিষ্যতের পরিবহন ব্যবস্থায় প্রযুক্তির নির্ভর হওয়ার দিকে অগ্রসর হচ্ছে। আর মেলবোর্ন অনন্য উদ্ভাবন ও প্রযুক্তির সংস্কৃতির সঙ্গে যুক্ত। সে কারণেই আমরা মেলবোর্নকে উবার এয়ারের পরীক্ষামূলক যাত্রার ক্ষেত্রে তৃতীয় শহর হিসেবে বেছে নিয়েছি। শিগগির অস্ট্রেলিয়ার অন্যান্য শহরগুলোতেও এই সেবা পৌঁছে দিতে চায় উবার। অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া সরকার এক্ষেত্রে অত্যন্ত আন্তরিক এবং আমরা মেলবোর্নে উবার এয়ারের প্রথম আন্তর্জাতিক ট্রায়ালের অগ্রগতিতে তাদের সঙ্গে কাজ করার জন্য উন্মুখ হয়ে আছি।’

মেলবোর্নের সিবিডি থেকে বিমানবন্দর যেতে সাধারণত ২৫ মিনিট থেকে এক ঘণ্টা সময় লাগে। উবার এয়ারের মাধ্যমে মাত্র ১০ মিনিটে সে পথ অতিক্রম করা যাবে বলে দাবি করেছেন উবারের এভিয়েশন বিভাগের প্রধান এরিক অ্যালিসন।

গত বছর উবার তাদের এই নতুন প্রকল্পটির জন্য সম্ভাব্য কিছু শহরের নাম ঘোষণা করে। প্রাথমিকভাবে জাপানের টোকিও ও ওসাকা, ভারতের মুম্বাই, দিল্লি এবং বেঙ্গালুরু, অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন ও সিডনি, ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরো এবং ফ্রান্সের প্যারিসে উড়ন্ত ট্যাক্সির মাধ্যমে যাত্রী পরিবহন সেবা চালু করতে চায় কোম্পানিটি।

তথ্যসূত্র : ম্যাশঅ্যাবল