সোমবার ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

নরসিংদীতে কলেজ শিক্ষার্থীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে অগ্নীদগ্ধের ঘটনায় ১ যুবক আটক,,বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ

আপডেটঃ ১:৫৬ পূর্বাহ্ণ | জুন ১৫, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: নরসিংদীঃ নরসিংদী জেলা শহরের বীরপুরে চাঞ্চল্যকর কলেজ শিক্ষার্থীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে অগ্নীদগ্ধের ঘটনায় ১ যুবক আটকও বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছে পুলিশ।শহরে  ফুলন রানী বর্মণ (২২) নামে কলেজ শিক্ষাথীর গায়ে কয়েক জন যুবকের আগুন দেওয়ার ঘটনায় এখন পর্যন্ত পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ কোনো মামলা দায়ের হয়নি।তবে এ ঘটনায় সন্দেভাজন সঞ্জিব রায় (২৪) নামে এক যুবককে আটকের কথা জানিয়েছেন নরসিংদীর পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহমেদ।আটকৃত সঞ্জিব রায়পুরা উপজেলার রায়পুরা পূর্বপাড়া গ্রামের ননী গোপাল রায়ের পুত্র।শুক্রবার (১৪ জুন) ভোরে রায়পুরা উপজেলার নিজ বাসা থেকে যুবকে আটক করা হয়।এ ঘটনায় দগ্ধ ফুলনের বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করবেন বলে জানিয়েছেন নরসিংদী পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহমেদ।পুলিশ সুপার বলেন, ঘটনাস্থল থেকে একটি কেরোসিনের বোতল, দিয়াশলাই বক্স, ওড়না, চুলসহ বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে।পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অন্য সদস্যরা ঘটনার তদন্তে মাঠে নেমেছে এবং জড়িতদের চিহ্নিত করা ও গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।ঘটনার সঙ্গে যারাই জড়িত থাকুক, দ্রুত তাদের আইনের আওতায় আনা হবে বলে আশ্বস্ত করেন পুলিশ সুপার।বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) রাত সাড়ে ৮টায় নরসিংদী জেলা শহরের বীরপুর মহল্লায় ফুলন রানী বর্মণ (২২) নামে এক কলেজ শিক্ষার্থীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে কয়েকজন য়ুবক।

এতে শিক্ষার্থীর শরীরের ২০ ভাগ পুড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।গুরুতর অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণইউনিটে পাঠানো হয়েছে।শহরের বীরপুর মহল্লায় এ ঘটনাটি ঘটেছে।দগ্ধ ফুলন বর্মণ বীরপুর মহল্লার যুগেন্দ্র বর্মণ এর মেয়ে ও নরসিংদীর উদয়ন কলেজ থেকে গত বছর এইচএসসি উর্ত্তীণ হয়েছে।দগ্ধ কলেজ শিক্ষার্থীর পরিবারের সদস্যরা সাংবাদিকদের জানায়, বাড়ির পার্শ্ববর্তী একটি দোকান থেকে মোবাইল রিচার্জ শেষে বাসায় ফিরছিল ফুলন বর্মণ।এসময় হঠাৎ করে অজ্ঞাতনামা যুবকরা তার হাত মুখ চেপে ধরে পাশের একটি নির্জন স্থানে নিয়ে যায়।সেখানে কেরোসিন ঢেলে তার শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায় যুবকরা। ফুলনের ডাক চিৎকার শুনে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নরসিংদী সদর হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।