সোমবার ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

টঙ্গীতে পিতার পাওনা টাকার জেরে ভাড়ার টাকা না পেয়ে- ভাড়াটিয়ার ছেলেকে হত্যার অভিযোগ

আপডেটঃ ১:২৫ পূর্বাহ্ণ | জুন ২৩, ২০১৯

নাঈমুল হাসান -টঙ্গী (গাজীপুর): গাজীপুরের টঙ্গীতে পিতা পাওনা টাকা পরিষধ না করার জেরে ছেলেকে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুর ৩টায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ নিহতের লাশটি উদ্ধার করে গাজীপুর মর্গে প্রেরণ করেন।
নিহতের নাম সাঈফ আলী(১৪)। সে রাজধানী উত্তরার গাফুরয়িা জামিয়া মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের ছাত্র। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত হারুন পলাতক রয়েছে। হারুন স্থানীয় মৃত.আব্দুর রশিদ সরকারের ছেলে।

নিহত শিশুটির পিতা কায়য়ুম জানায়, টঙ্গীর মাছিমপুর এলাকার নিউ মা ইঞ্জিনিয়ারীং নামে আমার একটি ওয়ার্কসপ আছে। কয়েক দিন যাবত গত মে মাসের বকেয়া দোকান ভাড়ার পনের হাজার টাকা চেয়ে আসছিলো জায়গার মালিক মো.হারুন সরকার। তবে পাওনা পরিষধ জন্য কয়েকদিন সময় চাইলে তিনি গত শুক্রবার রাতে দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন। পরদিন শনিবার সকালে নির্দেশ অমান্য করে দোকান খুলে আমার ছেলে সাঈফকে বসিয়ে রাখি। দুপুরে আমি বাসায় গেলে হারুন দোকানে এসে আমার ছেলেকে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যা করে দোকানে তালা লাগিয়ে চলে যায়। পরে স্থানীরা তালা ভেঙ্গে আমার ছেলের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়।তবে গলায় ফাঁস লেগে মৃত্যু হতে পারে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছে পুলিশ। নিহতের গলায় ও শরিরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। নিহত সাঈফ দিনাজপুর জেলার কোতোয়ালী থানা মাজা ভাঙ্গা গ্রামের আব্দুল কায়য়ুম। সে রাজধানী আবদুল্লাহপুর এলাকায় একটি ভাড়া বাড়িতে পরিবারের সঙ্গে বসবাস করে আসছিলো।

টঙ্গীর পূর্ব থানার(ওসি) মো.কামাল হোসেন ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।