শুক্রবার ১৯শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

গাজীপুর-২ আসনের সর্বস্তরের মানুষের নয়নের মণি ও উন্নয়নের রূপকার শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী রাসেলের কোন বিকল্প নেই ————-মো: জহির হোসাইন তুহিন

আপডেটঃ ২:৫৭ অপরাহ্ণ | জুন ২৩, ২০১৯

এস. এম. মনির হোসেন জীবন : গাজীপুর-২ আসনের সর্বস্তরের মানুষের নয়নের মণি ও বর্তমান সরকারের শাসনামলে গাজীপুরের উন্নয়নের রূপকার বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আলহাজ মো: জাহিদ আহসান রাসেল (এমপি)। জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কণ্যা শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ও গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগ সহ সহযোগী অংগ সংগঠনকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে আলহাজ জাহিদ আহসান রাসেল (এমপি’র) কোন বিকল্প নেই।

এই হোক আমার আগামী দিনে শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার।আজ রোববার দুপুরে গাজীপুর সিটি করপোরেশন (জিসিসি) ৪৮ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো: জহির হোসাইন তুহিন ,অনলাইন টেলিভিসন/ নিউজ পোর্টাল ’’ চ্যানেল সেভেন’’ এর সাথে একান্ত স্বাক্ষাতকারে তিনি এসব কথা বলেন।

আন্দোলন সংগ্রামের রাজপথের লড়াকু মুজিব সৈনিক প্রভাবশালী যুবলীগ নেতা মো: মো: জহির হোসাইন তুহিন বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে বলেন, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন বিশ্বনেত্রী । তার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচেছ। দলের জন্য নিজের জীবন বাজী রেখে হলেও আগামী দিনে টঙ্গী বাসির সর্বস্তরের মানুষের পাশে থেকে জনগনের কল্যাণের জন্য সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাবো।

সমাজের এলাকার মানুষের সুখ, দু:খে পাশে থেকে তাদের সেবা করতে চাই। এই হোক আমার বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ প্রত্যয়। দেশ উন্নয়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, গাজীপুর-২ আসনে বর্তমান সরকারের আমলে প্রতিটি এলাকায় যে পরিমান উন্নয়ন হয়েছে অতীতে আর কোন সরকারের আমলে সেটি হয়নি। বর্তমান সরকার হলো উন্নয়নের সরকার।

জাতির জনকের কণ্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচেছ, এগিয়ে যাবে। সে কারণে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আলহাজ¦ মো: জাহিদ আহসান রাসেল (এমপি) কোন বিকল্প নেই।

এক প্রশ্নের জবাবে (জিসিসি) ৪৮ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো: জহির হোসাইন তুহিন বলেন, আমি ১৯৮১ সালের ৪ ডিসেম্বর গাজীপুর জেলার টঙ্গীর দক্ষিন দত্তপাড়া, ইসলামপুর গ্রামে এক মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করি। আমার পিতার নাম মো: সারোয়ার আলম ও মাদার নাম মোসাম্মদ জাহানারা বেগম।

দলীয় ও পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিুবর রহমানের আদর্শকে মনেপ্রাণে ভালবেসে ১৯৯৬ সালে ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িত হই।

পরবর্তীতে আমি ছাত্ররাজনীতি সাথে জড়িত হই এবং ছাত্রলীগের মাধ্যমে আমার রাজননীতিতে আগমন হয়। এরপর পর্যায়ক্রমে আমি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সাবেক ৩ নং বর্তমান (৫৬,৫৭,) ওয়ার্ডের নেতা নির্বাচিত হই। ১৯৯৬ সালে ছাত্র রাজনিতির সাথে অর্থাৎ ছাত্রলীগ সাবেক ৩ নং বর্তমান (৫৬,৫৭,) ছাত্ররাজনীতি করার দীর্ঘ ২৩ বছর যাবত সাবেক ছাত্রলীগ, সাবেক সেচ্ছাসেবক লীগ,বর্তমানে যুবলীগের সাথে সম্পৃক্ত হয়ে দলের জন্য কাজ করে যাচিছ। এছাড়া বর্তমানে আমি গাজীপুর সিটি করপোরেশন (জিসিসি) ৪৮ নং ওয়ার্ডের যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক হিসেবে সততা ও নিষ্টার সাথে রাজনীতি করে আসছি। পাশাপাশি আমি টংগী পূর্বথানা যুবলীগের পদ হেভীওয়েট পদ প্রত্যাশী।

আমার পরিবার হলো রাজনৈতিক দলের পরিবার উল্লেক করে ৪৮ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো: জহির হোসাইন তুহিন বলেন, জাতীয় শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টারের ছোট ভাই আওয়ামীলীগ নেতা মো: মতিউর রহমান মতি (কাকার) হাত ধরে সেচ্ছাসেবক লীগে যোগদান করি।

পরবর্তীতে টঙ্গী ও গাজীপুরের যুবলীগের প্রভাবশালী নেতা এবং সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মো: সাইফুল ইসলাম ভাইয়ের সহযোগীতায় এবং গাজীপুর-২ আসনের পরপর ৩ (তিন) বার নির্বাচিত এমপি আলহাজ্ব মো: জাহিদ আহসান রাসেল (ভাইয়ের) হাত ধরে যুবলীগে যোগদান করি। বর্তমানে আমি জিসিসি ৪৮ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি এবং মহানগর যুবলীগ শক্তিশালী করার জন্য কাজ দলের জন্য কাজ করছি।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন- বর্তমানে গাজীপুর মহানগর যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো: সাইফুল ইসলাম ভাইয়ের সাথে কাধে কাধ মিলিয়ে প্রতিটি ওয়ার্ডের অন্তত ১০ টি করে ঘর নির্মাণ, এলাকায় বসবাসরত গরীব, অসহায়, এতিম ও দুস্থদের খাবার কাপড় সহ অন্যান্য পণ্যসামগী বিতরন করেছি। এলাকার দুস্থ ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে আগামী দিনে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেয়া হবে আমার কাজ।

প্রভাবশারী এই যুবলীগ নেতা এ প্রতিবেদককে জানান, বাংলাদেশ মানবাধিকার কাউন্সিল, টংগী থানার সাবেক সদস্য, টংগী নবাঙ্গন ক্লাব এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলাম। এছাড়া বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সংগঠনের সাথে জড়িত আছি।

টঙ্গীর দত্তপাড়া ইসলাম গ্রামের বাসিন্দাররা ও টঙ্গীর স্থানীয় যুবলীগ নেতারা মনে করেন, মাঠ পর্যায়ের তৃণমূল যুবলীগ নেতা মো: জহির হোসাইন তুহিন ছাত্রজীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে অঙ্গাঅঙ্গীভাবে জড়িত ছিলেন। এছাড়া তুহিনের নেতৃত্বেই আগামী দিনে সুন্দর ও মনোরম পরিবেশে দলীয় যুবলীগ নেতাকর্মীদেরকে ঐক্যবদ্ধ করা সম্ভব। তাই আগামী দিনে টঙ্গী পূর্ব থানা ও গাজীপুর মহানগর যুবলীগকে ঐক্যবদ্ধ করার লক্ষ্যে জনপ্রিয় যুবলীগ নেতা তুহিন রাত দিন কাজ করে যাচেছন। যুবলীগের মাঠ ও তৃণমূল পর্যায়ে পরীক্ষিত নেতারা এমনটা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এক প্রশ্নের উত্তরে প্রভাবশালী যুবলীগ নেতা জহির হোসাইন তুহিন এ প্রতিবেদককে বলেন, জাতিন জনক বঙ্গবন্ধুর রাজনীতি ও দেশরতœ শেখ হাসিনার রাজনীতির সাথে তুহিনের পুরো পরিবার আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত। আমার পরিবার হলো আওয়ামীলীগের পরিবার।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তুহিন জানান, গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট আজমত উল্লাহ খান সাহেবের হাত ধরে প্রথমে ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনীতিতে আমার আগমস ঘটে। পরবর্তীতে গাজীপুর-২ আসনের প্রয়াত সংসদ সদস্য,গাজীপুরের ভাওয়ালবীর প্রখাত শ্রমিকনেতা শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার এবং তার সুযোগ্য সন্তান আলহাজ মো: জাহিদ আহসান রাসেল (এমপি) হাত ধরে প্রথমে ছাত্রলীগ এবং পরে গাজীপুর মহানগর স্বেচছাসেবকলীগের আহবায়ক মো: মতিউর রহমানের হাত ধরে স্বেচছাসেবকলীগ এবং বর্তমানে যুবলীগে আমার আগমন ঘটে।

বর্তমান সরকারের ধারাবাহীক উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে তিনি জানান, শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নের কারনে আমার দেশে শত বছর এগিয়েছে। দেশ স্বাধীনতা পাওয়ার পর যতো গুলি সরকার দেশ পরিচালনা করেছেন তাদের সকল উন্নয়নের সমষ্টি ও শেখ হাসিনার উন্নয়নের কাছে ক্ষিন। শেখ জাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বের জন্য আজ আমরা গর্বিত কন্ঠে বলতে পারি আমরা বাঙ্গালী। তার একক প্রচেষ্টার কারণে আজ আমরা পৃথিবীর বুকে মাথা উচুঁ করে দাঁড়াতে পেরছে। সে কারণে শেষ বঙ্গবন্ধুর কণ্যা শেথ হাসিনার কোন বিকল্প নেই।

বর্তমান সরকারের মাদক, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসীবিরোধী কর্মকান্ড প্রশংসা উল্লেখ করে যুবলীগ নেতা তুহিন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সারা দেশব্যাপী মাদকবিরোধী অভিযান শুরু করা হয়েছে। সত্যিকার অর্থে এটি একটি ভাল উদ্যোগ। আমি টঙ্গীর ৪৮ নম্বর ওয়ার্ড যুব লীগের পক্ষ থেকে জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনাকে আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাচিছ।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গী, জঙ্গীবাদ ও মাদক দেশও জাতির চিরশত্রু। বর্তমান সরকার কঠোর হস্তে এগুলো দমন করার জন্য নিরলস ভাবে রাত দিন কাজ করে যাচেছন। আগামী দিনে টঙ্গীর ৪৮ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগ ও টঙ্গী পূর্ব থানা যুবলীগকে সুসংগঠিত করে সকলকে সাথে নিয়ে কাজ করতে চাই। সবাইকে পাশে রাখতে চাই। সকলে মিলে মিলে এলাকার উন্নয়নের জন্য কাজ ও সেবা করতে চাই।

দেশের পদ্মাসেতু, ফ্লাইওভার ও মেট্রোরেল প্রসঙ্গে যুবলীগ নেতা তুহিন বলেন, দেশীয় টাকা দিয়ে সরকার পদ্মা সেতু নির্মান করছেন। বিদেশী অর্থায়নে নয়। এটা সত্যিকারে গোটা বাঙ্গালী জাতির গর্ব। এছাড়া ফ্লাইওভার ও মেট্রোরেল তৈরী করছেন সরকার। অতীতে আর কোন সরকার তা করতে পারেনি।

তিনি আরও জানান মাদক, সন্ত্রান, চাঁদাবাজ, ছিনতাইকারী, জঙ্গী, জঙ্গীবাদ সহ অপরাধমূলক কর্মকান্ড বন্ধ করার জন্য আমি একমত।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রভাবশালী যুবলীগ নেতা মো: জহির হোসাইন তুহিন বলেন, বিএনপি-জামায়াত সরকারের শাসনামলে রাজনীতি করতে গিয়ে অনেক সময় বাড়ি থকে অন্যত্র পালিয়ে ছিলাম। যখন ছাত্রলীগ করতাম তখন বিএনপি ক্ষমতায় থাকা কালিন ছাত্র দলের গুন্ডা বাহিনীর সাথে কয়েক বার সংঘর্ষ হয়।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে তুহিন বলেন, বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও মহিলা লীগ সহ সহযোগী অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীরা আমার সাথে আছে। সব দলীয় কর্মসূচিতে তার সুযোগ্য ও সঠিক নেতৃত্বেও কারণে আমাদের আগামী দিনের পথচলা ও অনুপ্রেরনা যোগাবে।

এদিকে, গাজীপুরের যুব সমাজের অহংকার যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আলহাজ¦ মো: জাহিদ আহসান রাসেল (এমপি), গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি, এড. আজমত উল্লা খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মতি, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ এড. জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুর মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক কামরুল আহসান সরকার রাসেল, যুগ্ম আহ্বায়ক-১ সাইফুল ইসলাম মনে করেন, টঙ্গী পূর্ব থানা যুবলীগের কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে বিগত দিনের রাজনৈতিক দলীয় কর্মকান্ড, তৃণমূল ও মাঠ পর্যায়ের দলের পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের যাচাই বাচাই করে তাদেরকে মূল্যায়ন করা হবে।