মঙ্গলবার ১৫ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

রাজধানীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় সংগীত পরিচালক সহ ৩ জন নিহত ॥ বাস জব্দ….

আপডেটঃ ১১:১১ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৯

এস,এম,মনির হোসেন জীবন ॥ রাজধানীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় এক সুরকার ও সংগীত পরিচালক এবং এক ট্রাক শ্রমিক সহ ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন- সংগীত পরিচালক পারভেজ রব (৫৫), রাশেদ হাওলাদার (২০) ও জাহাঙ্গীর আলম (৪৪) ।
রাজধানীর উত্তরা-তুরাগের কামারপাড়া বেরীবাঁধ সড়কে ও মগবাজারে বুহস্পতিবার ও আজ এসব আদালা সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে।
ডিএমপি তুরাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: নুরুল মোত্তাকিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
তুরাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নির্মল চন্দ্র রায় জানান, সুরকার ও সংগীত পরিচালক পারভেজ রব বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে উত্তরার বাসা থেকে বের হয়ে তুরাগের ইস্ট ওয়েস্ট মেডিক্যাল কলেজের সামনে বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। এসময় তিনি একটি যাত্রীবাহী বাসে ওঠার সময় পাশ দিয়ে দ্রুত গতিতে আসা ভিক্টর ক্লাসিক (ঢাকা মেট্রো ব-১২-০৯৬৩) নামের অন্য একটি বাস তাকে এসে ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেয়। এতে তিনি মারাত্মকভাবে আহত হন। তাকে পথচারীরা উদ্ধার করে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতাল ও পরবর্তীতে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
এসআই নির্মল চন্দ্র রায় বলেন, বাসটি জব্দ করা হয়েছে। চালক ও তার সহকারী পালিয়ে গেছে। তাদেরকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় তুরাগ থানায় রোড এক্রিডেন্ট আইনে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
এদিকে, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উত্তরা ১০ নং সেক্টর কামারপাড়া বেরীবাধ সড়কে আইইউবিএটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে রাশেদ হাওলাদার (২১) নামে এক শ্রমিক রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে ছিল। এ সময় আসমানি পরিবহনের একটি বাস তাকে চাপা দেয়। পরে পথচারীরা রাশেদকে উত্তরা একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত রাশেদের গ্রামের বাড়ি ভোলা সদর থানায়। রাশেদের বাবার নাম সিরাজ হাওলাদার। বর্তমানে রাশেদ রাজধানীর তেজগাঁও ট্রাক স্ট্যান্ডে পাশে থাকেন। তার সঙ্গে রাশেদ ট্রাকের হেলপারি করতো। গতরাতে রাশেদ একটি কাজে উত্তরা কামাড় পাড়ায় গেলে সেখানে সে এদুর্ঘটনার শিকার হন।
অপর এদিকে, শুক্রবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে রাজধানীর মগবাজার সিএনজি পাম্পে ট্রাক থেকে ব্রয়লার মেশিন নামানোর সময় হঠাৎ নিচে চাপা পড়ে জাহাঙ্গীর আলম (৪৪) নামে এক শ্রমিক গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্বার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে জাহাঙ্গীরকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। জাহাঙ্গীরের গ্রামের বাড়ি শরিয়তপুর জেলার সখিপুরে উপজেলায়। সে তেজগাঁও ট্রাক স্ট্যান্ডে থাকতেন। পেশায় সে লেবারের কাজ করতো।
ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ বক্সের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো: বাচ্চু মিয়া শুক্রকার দুটি মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত করে জানান, ময়না তদন্তের জন্য মৃতদেহ মর্গে রাখা হয়েছে। এসব দুর্ঘটনায় সংশ্লিস্ট থানায় প্রয়োজনীয় আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।